বাংলাদেশ, রবিবার, ৫ই এপ্রিল, ২০২০ ইং, ২২শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লামায় এক বসত ঘরে আগুন, চাঁদার দাবীতে উড়ো চিঠি

লামা সংবাদদাতা 
লামায় চাঁদার দাবীতে একটি বসত ঘর পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার গভীর রাতে উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের হাফেজপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। প্রাইমারী শিক্ষক আব্দুল খালেকের বাড়ীতে একটি ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় ওরা। ওই ঘরে রক্ষিত ধান-চাল, সার, কৃষি যন্ত্রপাতিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী পুড়ে যায়। এতে ওই কৃষক পরিবারের কয়েক লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ৩ ফেব্রুয়ারী মাষ্টার আব্দুল খালেক থেকে সাড়ে তিন লাখ, চনুমংমার্মা থেকে দেড় লাখ টাকা দাবী করে চিঠি দেয় অজ্ঞাত ব্যক্তিরা। স্থানীয় আরো কয়েকজন থেকে বিভিন্ন অংকের চাঁদা দাবী করে চিঠি দেয় অজ্ঞাত এসব চাঁদাবাজরা। আতংকিত গ্রামবাসীরা বিষয়টি লামা থানাকে জানালে, বিগত পরপর ৫ রাত পুলিশ সদস্যরা গ্রামটিতে টহল দেয়। ৮ ফেব্রুয়ারী পুলিশ টহল না থাকার সুযোগে খালেক মাষ্টারের একটি ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। ইতোমধ্যে গ্রামবাসীদের কাছে দেয়া চিঠির বর্ণনানুযায়ী পেট্টোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে গৃহ মালিক জানান।
গ্রামবাসীরা জানায় চিংচিং মার্মা নামের এক যুবক দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় নানান অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে কয়েকটি মামলার আসামী হয়ে এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছে। সম্প্রতি চিংচিং মার্মা লুকিয়ে এলাকায় অবস্থান নিয়ে এসব ভীতিকর-সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাচ্ছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান ছাচিংপ্রু মার্মা জানায়, চিংচিং মার্মার সাথে আরো দু’জন বাঙ্গালী যুবক জড়িত হয়ে এসব চিঠিপত্র দিয়ে চাঁদাবাজীর চেষ্টা চালাচ্ছে। এই অবস্থা থেকে উত্তোরণে গ্রামবাসীরা সচেতন হয়ে রাত্রিকালীন পালাক্রমে পাহারা দেয়ার পরামর্শ দেন ইউপি চেয়ারম্যান।
লামা থানা পুলিশ জানায়, এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতী চলছে। হাফেজপাড়া গ্রামে পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply