বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ৩০শে জুন, ২০২০ ইং, ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আলীকদমে ইটভাটায় জ্বলছে বনের কাঠ

ইট তৈরির জন্য রির্জাব এলাকা বন ও পাহাড় থেকে লাকড়ি সংগ্রহের হিড়িক,বেপরোয়া লাকড়ি ব্যবসায়ী

আলীকদম প্রতিনিধি

‘ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩-এর বিধি লঙ্ঘন করে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় তিনটি ইটভাটায় পোড়ানো হচ্ছে কাঠ । আইন অমান্য করে তিনটি ইট ভাটাই স্থাপন করা হয়েছে ‘সংরক্ষিত বনভূমির ২ কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে। বন থেকেই কাটা হচ্ছে ইটভাটার লাকড়ি। এতে বিলীন হয়ে যাচ্ছে পাহাড়ের নানা প্রজাতির বৃক্ষ।

সরেজমিন দেখা গেছে, উপজেলার পূর্ব পালং পাড়া ও আমতলী এলাকায় ২টি ভাটায় ১টি ড্রামসিট চিমনি ও অন্যটি বয়লার চিমনি দিয়ে মাসাধিককাল থেকে কাঠ দিয়ে পোড়ানো হচ্ছে ইট। অপর দিকে তারাবুনিয়ায় আরেকটি ইটের ভাটায়ও কয়লার পরিবর্তে পোড়ানো হচ্ছে কাঠ। এই  ইট ভাটায় জ্বালানি ও ইট পরিবহনে ব্যবহার করা হয়েছে গ্রামীণ সড়ক। ভারি যানবাহন চলাচলের ফলে রাস্তা, ব্রিজ ও কালভার্ট ভেঙে জনসাধারণের চলাচলে দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। অতিরিক্ত গাড়ি চলাচলের কারণে গ্রামীণ রাস্তাঘাট ধুলায় একাকার হয়ে সর্বসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। অন্যদিকে কৃষি জমি সৃষ্টির নাম করে কাটা হচ্ছে পাহাড়। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তির সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে গাঁ ঢাকা দেয় তারা।

এসব ইটের ভাটায় অবৈধভাবে আহরিত লাকড়ির জোগান দিতে কয়েক বছর থেকে গড়ে উঠেছে তথাকথিত ক্ষুদ্র কাঠ ব্যবসায়ী সমিতি। প্রাকৃতিক সৃষ্ট বনধ্বংসে এ সমিতির সদস্যরা ‘নাটের গুরুথ সেজে ইটভাটা মালিকদের সঙ্গে একাকার হয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আলীকদম তৈন রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ শামসুল হুদা বলেন ইট ভাটায় অবৈধভাবে কাঠ পোড়ানো বিষয়ে আমরা অবগত আছি এবং উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে শীঘ্রই অভিযান পরিচালনা করা হবে।

ভাটা ঘুরে নামে মাত্র কয়লা দেখা যায়। ভাটার চারদিকে কাঠ স্তূপ করে রাখা হয়েছে। কয়েকজন শ্রমিকের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ইটভাটায় জ্বালানি হিসেবে কাঠ পোড়ানো হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শ্রমিক জানান, আমরা ইট তৈরিতে “কাটই পুড়ায়, কয়লাতো সেম্পল হিসেবে রাখি”,এবং প্রতি মৌসুমে একটি ভাটায় প্রায় পাঁচ হাজার মণ কাঠ পোড়ানো হয়।

আমতলী এলাকায় বাসিন্দা কবির হোসেন অভিযোগ করেন, ইটভাটার কালো ধোঁয়া ও ধুলাবালুতে বাড়িঘরে থাকা দায়। ভাটার মালিকেরা অর্থশালী হওয়ায় এলাকার লোকজন প্রতিবাদ করার সাহস পান না।

আইন অনুযায়ী জ্বালানি কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো নিষিদ্ধ সে সাথে আইনে বলা আছে ইট প্রস্ততের উদ্দেশ্যে কোন কৃষি জমি পহাড় বা টিলা থেকে মাটি সংগ্রহ করা যাবেনা। কিন্তু আলীকদম উপজেলায় গড়ে ওঠা প্রত্যেকটি ইট ভাটায় মাটি সংগ্রহ করা হয় স্থানীয় কৃষি জমি পহাড় বা টিলা থেকে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply