বাংলাদেশ, সোমবার, ৩০শে মার্চ, ২০২০ ইং, ১৬ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লামায় মহান স্বাধীনতা-জাতীয় দিবস উদযাপন ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের উপজেলা এবং পৌর কমিটি গঠিত

মো.কামরুজ্জামান, লামা (বান্দরবান)
লামা উপজেলায় মহান স্বাধীনতা-জাতীয় দিবস ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ উপজেলা এবং পৌর কমিটি গঠন-প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বীরমুক্তিযোদ্ধা সার্জেন্ট অব: আ: আজিজের সভাপতিত্বে ১৫ মার্চ লামা প্রেসক্লাব হলরুমে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী মুজিবর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি আলীকদম উপজেলা চেয়ারম্যান মো: আবুল কালাম, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট নাসিরুল আলম, পা:চ:না:প: উপদেষ্টা বীরমুক্তিযোদ্ধা অনা: ক্যাপ্টেন্ট অব: তারু মিয়া, কেন্দ্রীয় কমিটির সহপ্রচার সম্পাদক এম রুহুল আমিন।

বক্তারা উত্তাল মার্চের স্মৃতিচারণ করে বলেন, বঙ্গবন্ধু ৫৬ হাজার বর্গমাইলের বাংলাদেশ স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ তুলে ধরেন। তারা বলেন, পার্বত্যাঞ্চলে বৈষম্য নীতির কারণে বাঙ্গালীরা পিছিয়ে পড়েছে। একটি সন্ত্রাসী-উগ্রবাদী সংগঠন পার্বত্যাঞ্চলকে আলাদা করার গভীর ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। একটি কল্পিত রাষ্ট্র ঘোষণা করে উগ্রপন্থি ওই সন্ত্রাসী গ্রæপটি পার্বত্য চট্টগ্রামের সরকারী এক শীর্ষ নেতাকে বিতর্কিত করেছেন। বক্তারা দু:খ প্রকাশ করে বলেন, রাষ্ট্রের একজন দায়িতশীল হয়েও ওই শীর্ষ নেতা বিদ্রোহীদের বিতর্কিত আচরণের কোন নিন্দা বিবৃতি জানাননি।

বক্তারা বলেন, দেশদ্রোহী এই চক্রটি পার্বত্যাঞ্চলকে আলাদা করার নীলনকশা বাস্তবায়নে ভারতের বুকে বসে একটি কল্পিত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দু:স্বপ্ন দেখে। সভায় দীর্ঘ বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা কাজী মুজিব বলেন, জাতির জনক কণ্যার সরকার পার্বত্যবাসীর ব্যাপক উন্নয়ন করছেন। কিন্তু কিছু নেতা ব্যাতিত জনগনের ভাগ্য উন্নয়ন হয়নি। তিনি বলেন বস্তুগত উন্নয়ন হলেও মানব সম্পদের কোন উন্নতি হচ্ছে না। কলেজ, উচ্চ বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষক নেই। বিশুদ্ধ পানি পাচ্ছেন না নাগরিকরা। হাসপাতালগুলোতে ডাক্তার নেই। পার্বত্যাঞ্চলে সকল বৈষম্য নীতি-আইন বাতিলের দাবী জানান বক্তারা।

এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী মুজিবর রহমান; পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের লামা উপজেলা ও পৌর কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নাম ঘোষণা করেন। এর মধ্যে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট লামা উপজেলা কমিটির সভাপতি পদে বীরমুক্তিযোদ্ধা সার্জেন্ট অব: আ: আজিজ ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সিনিয়র রপর্িোটার মো.কামরুজ্জামান, পৌর কমিটির সভাপতি পদে মো: সোহরাব হোসেন (সাবেক কাউন্সিলর) ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান আকবর মোমিন এর নাম ঘোষণা করেন।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply