বাংলাদেশ, শনিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সংবর্ধনায় আকতার হোসেন সিআইপি খানদীঘি হাই স্কুলের শ্রেণিকক্ষ সংকট নিরসনে ৫০ লক্ষ টাকা অনুদানের প্রতিশ্র“তি

 

চন্দনাইশের কৃতি সন্তান, প্রখ্যাত দানবীর আলহাজ্ব মোহাম্মদ আকতার হোসেন সিআইপি’র জাতীয় অর্থনীতির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ও চন্দনাইশের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জীবনমানের উন্নয়নে অসাধারণ ভূমিকা পালনের স্বীকৃতি স্বরূপ ঐতিহ্যবাহী খানদীঘি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও পূর্ব সাতবাড়িয়া এলাকাবাসীর উদ্যোগে তাকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়।
এসময় আকতার হোসেন সিআইপি বলেন, বর্তমান সময়ের বিত্তশালীরা স্বদেশের মাঠি ও মানুষকে ভূলে গিয়ে অর্থসম্পদের প্রাচুর্যে বিদেশের মাটিতে স্থায়ী হতে চায়। কিন্তু আমার চিন্তা চেতনা বিদেশের মাটিতে কাজ করে অর্থ উপার্জন করে দেশে ব্যয় করা, দেশে প্রতিষ্ঠিত হওয়া, দেশকে প্রতিষ্ঠিত করা। দেশের মেঠো পথে আমি বড় হয়েছি, এখানেই আমার অস্থিত্ব, আমার শেখড়, এখানকার সার্বিক উন্নয়নে আমার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র প্রচেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে। সরকারের পাশাপাশি দেশের আর্থ সামাজিক, উন্নয়নে বিত্তশালীদেরও এগিয়ে আসা উচিত। দেশের প্রতি সকলের দায়বদ্ধতা ভুলে গেলে চলবে না। তিনি ঐতিহ্যবাহী খানদীঘি হাই স্কুলের ৯ শতাধিক কোমলমতি শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষের প্রকট সংকট দেখে বিম্মিত হন। তিনি শ্রেণিকক্ষ সংকট দ্রুত নিরসন করে সুস্থ্য পরিবেশে শিক্ষার্থীদের উন্নত পাঠদান নিশ্চিত করতে ৫০ লক্ষ টাকা অনুদানের প্রতিশ্র“তি দেন।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব আবু আহমেদ জুনু। তিনি বলেন, আকতার হোসেন সিআইপি চন্দনাইশবাসীর গর্ব ও অহংকার। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কল্যাণে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য। তাঁকে সংবর্ধনা দিতে পেরে আমরা আনন্দিত।
আবু আহমেদ জুনু ঐতিহ্যবাহী খানদীঘি হাই স্কুলের উন্নয়নে এগিয়ে আসায় আকতার হোসেন সিআইপিকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদের শেষ সময়ে এসেও সরকারিভাবে কোন ভবন বরাদ্দ না হওয়ায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের সভাপতি মোঃ শাখাওয়াত হোসেন শিবলী বলেন, এ স্কুলটি চন্দনাইশ আওয়ামী রাজনীতির প্রজননস্থল। বিগত জোট সরকারের আমলেও যেমন উন্নয়ন বঞ্চিত ছিল বর্তমান সরকারের আমলেও একইভাবে অজ্ঞাত কারণে বঞ্চিত রয়েই গেল। একদিন ইতিহাসের কাটগড়ায় সংশ্লিষ্ট সকলকে এই অবিচারের জবাব দিতে হবে।
আজ অনুষ্ঠিত এই গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বিশেষ অতিথি ছিলেন, হাজী রমিজ আহমেদ ও পৌর কাউন্সিলর মোজাম্মেল হক চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সদস্য মোঃ নুরুল আমিন, বিধু ভূষন নাথ, মনির আহমদ, সাবেক সদস্য আলহাজ্ব শরফত আলী সওদাগর, প্রধান শিক্ষক অনুপম মহাজন, সমাজসেবক আলহাজ্ব অলি আহমদ সওদাগর ও নুরুল ইসলাম, মাওলানা কামাল উদ্দিন, বিকাশ চন্দ্র দে, চন্দনাইশ উপজেলা যুবলীগ নেতা মাহম্মদ হোসেন, শফিউল আজম চৌধুরী, আবছার হোসেন, আজাদ হোসেন টিপু, নাজিম উদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, কাজী খোরশেদুল আলম, মোঃ ইলিয়াছ চৌধরী, ছাত্রলীগ নেতা এস.এম. রাশেদ, সাইফুর রহমান ও হাবিবুল্লাহ রাশেদ প্রমুখ।

আরো খবর

Leave a Reply