মে ৯, ২০২১ ৭:২৩ পূর্বাহ্ণ

‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ কাউন্সিলর প্রার্থী এসরাল

মোঃ শাহিন
করোনা মহামারির এই সময়ে খেয়ে-না খেয়ে দিন কাটছে সাধারণ মানুষের। শ্রমজীবী মানুষের পাশাপাশি নিম্ন মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত মানুষের ঘরে এক বেলা খাবার জুটে কিনা তাও সন্দিহান। ঠিক এমন সময় দেশের বহু বিত্তবান হাত গুটিয়ে বসে থাকলেও কিছু মানুষ তাদের সহযোগিতার হাত খোলা রেখেছেন ঠিকই। তাদের উদ্দেশ্য আত্মপ্রচার নয়। তারা মানবতার সেবায় নীরবে-নিভৃতে সাধারণ মানুষদের সহযোগিতা করে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত।
এমনই একজন যুবলীগের সংগঠক, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সমাজসেবক এসরারুল হক এসরাল। এই মানবসেবী চান্দগাঁওয়ের বাসিন্দা। করোনায় বিপর্যস্ত অসহায় মানুষকে সহায়তা করে এখন এলাকায় তিনি ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’।
করোনার এই সময়ে এসরাল ৭ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা, ১২০ জন করোনা রোগীকে অক্সিজেন সাপোর্ট, নগরের বেশকিছু মসজি-মন্দির-গীর্জায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান বিতরণ, বিভিন্ন এতিমখানায় খাবার বিতরণ এবং প্রতি শুক্রবার ২৫০ জন গরীব দুঃস্থদের রান্না করা খাবার বিতরণ করে এলাকায় বেশ প্রশংসিত হয়েছেন তিনি।
শুধু করোনাকাল নয়, চন্দগাঁওয়ের প্রতিটি ওয়ার্ডেই রয়েছে তার এ রকম কাজের অসংখ্য উদাহরণ। যেমন গত বছর তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে ডেঙ্গু মশা নিধনে চান্দগাঁওয়ের বিভিন্ন এলাকায় ছিটানো হয়েছে ৫ লাখ টাকার ওষুধ। ফোন পেলেই সকাল কিংবা সন্ধ্যা এমনকি রাতেও তিনি চান্দগাঁওয়ের মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়ান।
অক্সিজেন সাপোর্ট পাওয়া বহদ্দারহাট ফরিদের পাড়ার বাসিন্দা মো. ফরহাদ বলেন, আমার অক্সিজেন সংকট দেখা দেওয়ার পর এসরাল ভাইকে ফোন দিয়েছি। তিনি সঙ্গে সঙ্গে অক্সিজেনের ব্যবস্থা করে দিলেন। করোনার সময় আসলে অক্সিজেন কোথাও পাচ্ছিলাম না। দ্রুত অক্সিজেন যদি না পেতাম তাহলে আমার অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যেত। আসলে এসরাল ভাই একজন ভালো মানুষ।
চান্দগাঁওয়ের উদুরপাড়ার সিফাত নামের আরক ব্যক্তি বলেন, আমি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর কাউন্সিলর প্রার্থী এসরাল আমার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। তিনি অক্সিজেনসহ আমাকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন। এমনকি প্রতিদিন খাবারেও ব্যবস্থা করেছেন। এসরাল ভাই আসলেই ভালো মনের মানুষ। করোনায় তার এ উপকার ভুলে যাওয়ার মতো নয়।
চান্দগাঁওয়ের সিডিএ এ ব্লক মডেল আবাসিক এলাকা কল্যান সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল মনছুর বলেন, আমি তো নিজেও সাক্ষী এবং নিজের চোখেও প্রতিদিন দেখতেছি তিনি সবসময় মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছেন। করোনায় উনি আয়ত্মের বাইরে গিযে কয়েক হাজার ফ্যামিলিকে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছেন। আবার প্রতি শুক্রবারও অনেক অসহায় মানুষকে খাবার দিচ্ছেন। তবে এখানে অনেক প্রভাবশালী লোক আছেন তাদের কাছ থেকে আমরা এখনও পর্যন্ত এ রকম কোন কাজ দেখিনি। এখানে প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় যাকে পাচ্ছেন তাকেই তিনি ত্রাণ দিয়ে যাচ্ছেন। এটি অসাধারণ উদ্যোগ।
ব্যবসা থেকে আয়ের বেশকিছু টাকাই তিনি সমাজের কাজে খরচ করেন বলে জানিয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী এসরারুল হক এসরাল বলেন, দীর্ঘ থেকে সমাজের মানবিক কাজগুলোর সঙ্গে আমি জড়িত। এসব করতে ভালো লাগে। আমি যতদিন বেঁচে থাকবো ততদিন অন্তত চান্দগাঁওয়ের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে যাবো। এছাড়া আমি বিশ্বাস করি, দেশের যে কোনো দুর্যোগ পরিস্থিতিতে বর্তমান সরকার ও আওয়ামী লীগ সাধারণ মানুষের পাশে আগেও ছিল, বর্তমানেও আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। সবসময় মানুষের পাশে দাঁড়াতে সবার কাছে সবার কাছে দোয়াও চেয়েছেন তিনি।
শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply