বাংলাদেশ, রবিবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

লক্ষনশ্রী ইউপি সদস্য ফখরুল এর বিরুদ্ধে ৩ প্রতারিত নারী পুরুষের অভিযোগ দায়ের

আল-হেলাল,সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের হবতপুর গ্রামে মাতৃত্ব ভাতা, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা দেওয়ার কথা বলে অসহায় মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায় করায় ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফখরুল মিয়া তালুকদারের বিরুদ্ধে পৃথক ৩টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ ৩টি দায়ের করেছেন হবতপুর গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মশর আলী,তানজিদা বেগম ও জমিলা বেগম।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, হবতপুর গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফখরুল মিয়া তালুকদার মশর আলীকে বয়স্ক ভাতা দেওয়ার কথা বলে ১৫০০ টাকা,তানজিদা বেগমকে মাতত্বৃ ভাতা দেওয়ার কথা বলে ১৩০০ টাকা ও জমিলা বেগমকে বিধবা ভাতা দেওয়ার কথা বলে ১০০০ টাকা নিয়েছেন। এখন ভাতা দেওয়াতো দুরের কথা ভাতার কথা বলতে গেলে ইউপি সদস্য তাদেরকে হুমকি ও ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। ফলে নিরুপায় হয়ে তারা সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন।
হবতপুর গ্রামে খোজ নিয়ে জানা যায়, হবতপুর গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফখরুল মিয়া তালুকদার সব কিছুতে স্বজনপ্রীতি করেন, সাধারণ মানুষ তাকে খোজে পায় না, সরকারি কোন মালামাল আসলে তিনি শুধু নিজের আত্মীয় স্বজনদের দেখে দেখে দেন।
অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ফখরু মিয়া তালুকদার তার বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি কারো কাছ থেকে কোন টাকা নেইনি। প্রতারিত নারী পুরুষেরা বলেন,ঐ মেম্বার সন্ত্রাস চাঁদাবাজীসহ একাধিক মামলার আসামী। তিনি ভাতা দেওয়ার কথা বলে আমাদের কাছ থেকে নগদ টাকা নিয়েছেন আমরা তা উপযুক্ত সাক্ষী দিয়ে প্রমাণ করে দেবো।
লক্ষণশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল অদুদ বলেন,প্রতারিতরা আমার কাছে অভিযোগ দিলে হয়তো আমি বিষয়টি অনেক আগেই মীমাংসা করতে পারতাম।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ইয়াসমিন নাহার রুমা বলেন, অভিযোগ গুলো এখনও আমার নজরে পড়েনি, অভিযোগগুলো দেখে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করার চেষ্টা করবো।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply