বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০১৯ ইং, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

ঠান্ডা মিয়ার গরম কথা (২১৩ ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমীপে

জনপ্রিয়তায় হিলারী ক্লিনটনকেও আপনি ছাড়িয়া গিয়াছেন

মাননীয়,

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমীপে,

শ্রদ্ধেয় হাসিনা আপনারে,

গরম গরম কথার শুরুতে আমার লাখ কোটি সালাম জানিবেন। আশা করি আল্লাহ মালিকের অপার মহিমায় ভালো থাকিয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর ভিশন ও মিশন কায়েমের লক্ষ্যে নানান ফর্মূলা তৈরী ও বাস্তবায়ন করিয়া মহা- সুখেই আছেন। আমিও গ্রাম বাংলার এক মফস্বল শহরে থাকিয়া জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ও দেশের ভবিষ্যতের কথা ভাবিয়া ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্ছার মতো খাইয়া না খাইয়া বাঁচিয়া আছি। গেল বারে চট্টগ্রামের ফজলুল করিম চৌধুরী এমপি সমীপে ঠাণ্ডা মিয়ার গরম কথা  লিখিবার সময় এইবার আপনার সমীপে লিখিব বলিয়াছিলাম, বলিয়াই লিখিতেছি বলিয়া রাগ করিবেন না বরং শত ব্যস্ততার মধ্যেও গরম কথাটুকু পড়িয়া দেখিবেন ও যাহা প্রয়োজন তাহা করিবেন এবং ভুল হইলে নিজ গুনে মাফও করিয়া দিবেন।

হাসিনা আপনারে,

আপনি হইলেন, এশিয়ার লৌহমানবখ্যাত জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী । বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর দুনিয়াখ্যাত মহিলা নেত্রী হিলারী ক্লিনটনকেও আপনি জনপ্রিয়তায়  ছাড়িয়া গিয়াছেন।এই দেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী আপনি।দক্ষিণ এশিয়ার বৃহৎ রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের সভানেত্রীও আপনি। দুনিয়ার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও খ্যাতিবান সংগঠন থেকে বহু সম্মান ওপুরুষ্কারে আপনি ভুষিত হইয়াছেন।আপনি দেশটাকে উন্নয়ন ও ডিজিটালে রুপান্তর করিয়া পৃথিবীবাসীকে  নিজ প্রতিভা ও যোগ্যতা দেখাইয়াছেন।বিশ্ব ব্যাংক বুঝিতে পারিয়াছে আপনি কত বিশ্বাস ও আস্হার উপর নির্ভরশীল হইয়া দেশ পরিচালনা করিতেছেন।বঙ্গবন্ধুর রক্ত আপনার শিরা- উপ শিরায় বিরাজ করিতেছে বলিয়া আপনি এইদেশটাকে এতই ভালবাসেন।যাক, সেইসব কথা।

হাসিনা আপনারে,

অনেক ক্ষেত্রে আপনি এত বেশী সফল যে, যাহা আপনার বিরুদ্ধবাধীরাও শিকার করিয়া থাকেন।যুদ্ধাপরাধীদের বিচার আপনি না হইলে কখনো এইদেশে হইত না।হইত না, ১লা জানুয়ারীতে দেশে ছাত্র-ছাত্রীদের বই পাওয়ার উৎসব।বিদ্যুতের ভেল্কিবাজী আপনার আমলেই দূর হইয়াছে।বয়স্ক ও বিধবা ভাতা, মুক্তিযুদ্ধাদের মূল্যায়ন ও গ্রামে গ্রামে স্বাস্হ্য ক্লিনিক আপনিই করিয়াছেন। দেশের একমাত্র সমুদ্র  ট্যানেল যাহা বঙ্গবন্ধু ট্যানেল নামে পরিচয় পাইতেছে, তাহা আপনিই করিবার সাহস করিয়া বাস্তবায়ন করিতেছেন।এইটা এইদেশের ইতিহাসে মাইলফলক হিসাবে যুগ যুগ ধরিয়া কাজ করিবে।তরুন প্রযন্মকে নেতৃত্ব দিয়া প্রবীণদের কিভাবে সম্মান দেখাইতে হয় এইবার মন্ত্রী পরিষদ তাহারই উদাহরণ হিসাবে পৃথিবীবাসী লক্ষ্য করিতেছে।লক্ষ্য করিতেছে, আপনার ইশারায় কিভাবে পুরো দেশের প্রশাসন চলিতেছে।গ্রামকে শহর করিবার স্বপ্ন আপনি এইদেশের মানুষকে দেখাইতেছেন।এর আগে আপনি বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ করিবার স্বপ্ন দেখাইয়াছেন। স্বপ্ন দেখাইতেও জানিতে হয় এবং যোগ্যতাও লাগে, যাহা আপনার আছে বলিয়াই আপনি দেশের নেতৃত্ব দিতেছেন এবং খালেদা জিয়ার সেই যোগ্যতাও নাই ও সাবমেরিন ক্যাবলের ফায়দাও বুঝিতে পারেন নাই।ফলে খালেদা জিয়ার আমলে আমরা ইন্টারনেট পাই নাই। আমাদের প্রিয় জন্মভুমি বাংলাদেশটি দুনিয়া থেকে তখন বিচ্ছিন্ন ছিল।

হাসিনা আপনারে,

আজ আপনার কাছে কিছু দেশের মহা সমস্যার কথা তুলিয়া ধরিব যাহা আপনিও ভালো করিয়া জানেন।মাদকে আজ দেশ ভাসিতেছে। আপনার দেশের তরুন প্রযন্ম এই মাদকের ছোবলে পড়িয়া গোটা দেশটা অশান্তিতে মাতাইয়া রাখিয়াছে।কত পরিবার তছনচ হইয়াছে তাহা আমি নিজ চোখে দেখিয়াছি। রাষ্ট্রীয় প্রটোকলের কারণে ইচ্ছা থাকিলেও হয়ত  তৃণমূলের কাছে যাওয়া আপনার সহজ হইতেছে না। টেকনাফ, আনোয়ারা ও উপকূল অঞ্চল হইয়া কোটি কোটি টাকার ইয়াবা আসিতেছে হরদম। মাঝে মাঝে  হিসাবের গণ্ডগোল হইলে ধরাও পড়ে।কিন্তু গডফাদারেরা বার বার ধরাছোয়ার বাইরে রহিয়া যায়।আপনার প্রশাসনের কাছে এইসব গডফাদারের তালিকাও আছে।এই ব্যবসার প্রতি লোভ যাহাতে জন্মাতে না পারে এবং এই ব্যবসায়ীরা যাহাতে রাজনীতিতে ঢুকিতে না পারে এমন নিরুসাহিতমূলক কর্মসূচী হাতে লইতে হইবে। চিহ্নিতদের একেবারে বন্ধুকযুদ্ধে হতম করিয়া ইয়াবা ব্যবসায়ীর টাকায় নির্মিত ঘর বাড়ী গুড়িয়ে দেয়া যায় কিনা ভাবিয়া দেখিবেন।জানে বাঁচিতে না পারিলে ও ঘরও করিতে না পারিলে এই ব্যবসার প্রতি লোভ কমিয়া আসিবে।আশ্রয় – প্রশ্রয় দিয়া যাহারা প্রশাসনকে কলংকিত করিয়া দেশটার বারটা বাজাইতেছে তাহাদেরকেও উপযুক্ত শায়েস্তা করিতে হইবে।আজ আর না মঙ্গল ও সুস্বাস্হ কামনায়।

                                                                                                            ইতি আপনারই গ্রাম বাংলার অখ্যাত ঠান্ডা মিয়া

গ্রন্হনা ম. আ. হ

তারিখ ১৫ মার্চ ২০১৯

আগামী সংখ্যায় নবনির্বাচিত ডাকসু ভিপি নুরুল হক সমীপে ঠান্ডা মিয়ার গরম কথা (২১৪) সম্প্রচার হইবে।

 

আরো খবর

Leave a Reply