বাংলাদেশ, সোমবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মানববন্ধনে উপকুলবাসীর দাবী: আনোয়ারায় সেনা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে স্থায়ী-টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করতে হবে 

 

আনোয়ারা প্রতিনিধি

অতীতের দূর্নীতির কারণে সরকারের কোটি কোটি টাকার বাজেট পানিতে মিশে গেছে, বেডিবাঁধের নামে দিল বালির বাঁধ। ৯১ এর ঘূর্ণিঝড়ের পর থেকে আনোয়ারা উপকূল রায়পুর ইউনিয়ন রক্ষায় স্থায়ী-টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবী করে আসছে এই ইউনিয়নের ৪০ হাজার মানুষ। ৩০ বছর পেরিয়ে গেলেও ইউনিয়নবাসীর এ দাবী পুরণ হয়নি। আবার সরকার যখন বেড়িবাঁধ নির্মাণের বাজেট ঘোষণা দেয় তখনই এক শ্রেণির ক্ষমতালোভী দূর্নীতিবাজ লোকের কারণে সেই বেড়িবাঁধ টেকসই হতে পারেনা। তাই আজকের মানব বন্ধনে শতশত ক্ষতি গ্রস্থ পরিবারের দাবী কোন দূর্নীতিবাজ নেতার মাধ্যমে নয়, সরাসরি বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে স্থায়ী টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করতে হবে।

 আজ  সোমবার ৩ আগষ্ট সকাল ১০ টায় উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের গহিরা বারআউলিয়া এলাকায় আনোয়ারা উপকূল রক্ষায় ” ত্রাণ চাইনা, স্থায়ী-টেকসই বেড়িবাঁধ চাই” শ্লোগানে স্থানীয় জনতা, ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও সামাজিক সংগঠন গুলোর ব্যানারে মানব বন্ধনে এ দাবী জানানো হয়। মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন, শিক্ষক মওলানা আবদুর রহিম,  চট্টগ্রাম বন্দরের সাবেক কর্মকর্তা ইঞ্জিনিয়ার শাহজাহান, আনোয়ারা স্বপ্নবাজ এর পরিচালক এইচএম নিজাম উদ্দিন চৌধুরী, হাফেজ মো. নাছির, নুরুল আবছার সবুজ, মানিক আখতার কামাল ও মো. দিদার প্রমুখ। বিভিন্ন সংগঠন গুলোর মধ্যে অংশ গ্রহণ করেন,সামাজিক ও মানবিক সংগঠন স্বপ্নবাজ,আনোয়ারা আলোকযাত্রী, খোর্দ্দ গহিরা সোনালী সংঘ, বারআউলিয়া ফাউন্ডেশন, উত্তর পরুয়াপাড়া একাডেমি, গহিরা ফাফেজ একতা সংঘ ও তরুণ মুসলিম ক্লাব,চাঁনগাজী বাড়ি একতা সংঘ। এসময় শত শত মানুষ স্থায়ী টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও নির্মাণ কাজে দূর্নীতিবাজদের বিচার চেয়ে স্থানী সাংসদ ভূমি মন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের হস্থক্ষেপ কামনা করে শ্লোগান দেন। হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে এক পর্যায়ে মানব বন্ধন গণজমায়েতে পরিণত হয়।

 

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply