বাংলাদেশ, সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নবী-ওলী-মনীষীদের বিরুদ্ধে কটূক্তি ও অবমাননা রোধে কঠোর আইনি পদক্ষেপ নিন

লালদীঘি ময়দানে ওএসির আন্তর্জাতিক সুন্নি সম্মেলনের উদ্বোধনী দিনে জিকরে মুস্তফা (দ.) মাহফিল

হাজার হাজার নবী-ওলীপ্রেমী জনতার অংশগ্রহণে নগরীর লালদীঘি ময়দানে আহলে সুন্নাত সম্মেলন সংস্থা ওএসি বাংলাদেশ এর আয়োজনে তিনদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সুন্নি সম্মেলন শুরু হয়েছে। গতকাল ১৬ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বাদে মাগরিব থেকে শুরু হওয়া সুন্নি সম্মেলনের উদ্বোধনী দিনে জিকরে মুস্তফা (দ.) মাহফিলে বিভিন্ন ইসলামী সাংস্কতিক ফোরামের শায়েরগণ হামদ ও না’তে রাসূল (দ.) পরিবেশন করে মুখরিত করে তুলেন পুরো লালদীঘি এলাকা। ওএসির সহ-সভাপতি আল্লামা শাহ নূর মোহাম্মদ আলকাদেরীর সভাপতিত্বে সম্মেলনের প্রথম দিবসে প্রধান অতিথি ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত বাংলাদেশ এর স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্য মাওলানা স উ ম আবদুস সামাদ। সম্মেলন উদ্বোধন করেন রাজনীতিবিদ অধ্যক্ষ আল্লামা তৈয়ব আলী। সম্মেলনে বক্তারা বলেন, প্রিয় নবীর (দ.) শান মর্যাদা সমুন্নত করেছেন স্বয়ং মহান আল্লাহ পাক। নবী-ওলীগণের প্রতি সর্বোচ্চ শ্রদ্ধা ও সম্মান প্রদর্শনই ঈমানের অনিবার্য দাবি। যে ইবাদতে নবী-সাহাবা-ওলীদের স্মরণ করা হয় না তা কখনো আল্লাহ পাকের দরবারে গ্রহণযোগ্য হয় না। বক্তারা বলেন, কোনো নেতা বা আলেমের বিরুদ্ধে কটূক্তি করলে প্রচলিত আইনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা থাকলেও আল্লাহ-নবী-রাসূল-সাহাবা ও ওলী-মনীষীদের বিরুদ্ধে অহরহ কটূক্তি ও অবমাননা করা হচ্ছে। এ ধরনের অপরাধীদের কোনো শাস্তিই দেয়া হচ্ছে না। দেশ ও সমাজে স্বাভাবিক পরিবেশ সুরক্ষা ও ধর্মীয় সম্প্রীতির ঐতিহ্য ধরে রাখতে আল্লাহ-নবী-রাসূল-সাহাবা-পুণ্যাত্মা রমণী-ওলী-মনীষীদের অবমাননাকারীদের বিরুদ্ধে অবশ্যই কঠোর আইনি পদক্ষেপ নিতে হবে। বক্তারা অবিলম্বে সুন্নি আলেম মাহবুবুল হক নূরে বাংলার নিঃর্শত মুক্তির দাবি করেন। ধর্মের নামে হানাহানি ও উস্কানিমূলক তৎপরতা রুখতে আলেম সমাজসহ সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান বক্তারা। সম্মেলনে প্রধান অতিথি স উ ম আবদুস সামাদ বলেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। কোনো নেতা-আলেমের বিরুদ্ধে কেউ কিছু বললে মামলা ঠুকে দেয়া হচ্ছে। নির্বিচারে অনেকে গ্রেফতার হচ্ছেন। অথচ আল্লাহ-নবী-রাসূল-সাহাবী-ওলীসহ ধর্মীয় ব্যক্তিত্বদের বিরুদ্ধে বহু বক্তা বিষোদগার করে পার পেয়ে যাচ্ছেন। শেরে খোদা মওলা আলী (রা:) ও বিদূষী মা খাদিজার বিরুদ্ধে একজন বক্তা মাঠে ময়দানে প্রকাশ্যে ন্যক্কারজনক বক্তৃতা করে আসলেও তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। বক্তা নামধারী এ ধরনের ঘৃণ্য ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ওএসির সাধারণ সম্পাদক আল্লামা কাজী মুহাম্মদ মুঈন উদ্দিন আশরাফী, আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত এর মুখপাত্র এডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার, উপাধ্যক্ষ আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মদ নুরুল আমিন, অধ্যক্ষ বদিউল আলম রেজভী, পীরে তরিক্বত আল্লামা গোলামুর রহমান আশরফ শাহ্, মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মাষ্টার মুহাম্মদ আবুল হোসাইন, মাওলানা ইকবাল হোসাইন আলকাদেরী, মাওলানা নুরুল ইসলাম জিহাদী, মাওলানা শিব্বির আহমদ ওসমানি, মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান সর্দার, মাওলানা আব্দুল নবী আলকাদেরী, মাওলানা নঈমুল হক নঈমী, মাওলানা মোক্তার আহমদ রেজভী, মুহাম্মদ এনামুল হক সিদ্দিকী, সৈয়দ মুহাম্মদ আবু আজম, মুহাম্মদ সাকুর মিয়া প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে আল্লামা নূর মোহাম্মদ আলকাদেরী বলেন, মুসলিম বিশ্বে আজ হানাহানি ও সংঘাত চলছে। ইসলাম ও মানবতার শত্রুরা দেশে দেশে হানাহানি লাগিয়ে রেখেছে। মুসলমানদেরকে ঈমানি শক্তি নিয়ে জেগে ওঠে সমস্ত অপশক্তিকে রুখে দাঁড়াতে হবে।
উদ্বোধক আল্লামা তৈয়ব আলী বলেন, অসংগঠিত হওয়ার কারণে সুন্নিরা আজ সবচেয়ে পিছিয়ে পড়েছে। সব অঙ্গনে বৃহত্তর প্রভাব বলয় গড়ে তুলতে সুন্নিদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আজ শুক্রবার সুন্নি সম্মেলনের ২য় দিনে সভাপতিত্ব করেন ওএসি সভাপতি আল্লামা হাফেজ সোলাইমান আনসারি। প্রধান অতিথি থাকবেন সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন। বিদেশী আলোচক থাকবেন ভারতের আল্লামা মুহাম্মদ হোসেন ছিদ্দিকী আবুল হক্কানি ও শ্রীলংকার আল্লামা হাফিজ এহসান ইকবাল কাদেরী।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply