বাংলাদেশ, সোমবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লোহাগাড়া বার আউলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ছাত্র-শিক্ষক, অভিভাবক ও গুনীজন সংবর্ধনা

 

১৬ নভেম্বর শনিবার লোহাগাড়া বার আউলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ছাত্র-শিক্ষক অভিভাবক ও গুনীজন সংবর্ধনা কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতকানিয়া-লোহাগাড়া থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য (চট্টগ্রাম-৮) প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তান উপাচার্য এবং সোসাল ইসলামী ব্যাংকের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আসিফ, বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়েল উপাচার্য প্রফেসর ড. সরোজ কান্তি সিংহ হাজারী, ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালযেল উপাচার্য প্রফেসর ড: আহসান উল্লাহ ও পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এবং বার আউলিয়া কলেজ পরিচালনা কমিটির দাতা সদস্য মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী এবং মহানগর আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক লোহাগাড়ার কৃতি সন্তান ও মরহুম সিরাজুল হক মিয়ার কৃতি সন্তান মাহবুবুল হক মিয়া। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য প্রিন্সিপাল ড: মুহাম্মদ রেজাউল করিম। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করার পর সম্মানিত অতিথিদের কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, অভিভাবক ও পরিচালনা কমিটির পমা থেকে পুষ্পস্তবক প্রদান করা হয়।
সভায় কলেজের অধ্যক্ষ ফয়েজ উল্লাহ স্বাগত বক্তব্য রাখেন। কলেজ পরিচালনা কমিটির পমা থেকে বক্তব্য রাখেন এডভোকেট হুমায়ুন কবির রাসেল। অতিথিদের বক্তব্যের পর অত্র কলেজের প্রাক্তন ছাত্রদের মধ্যে যারা পি এইচডি করে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন যারা বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সম্মানজনক চাকুরী করছেন এবং যারা ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার হয়ে কলেজের সুনাম বৃদ্ধি করেছেন তাদের এবঙ অভিভাবকদের ক্রেস্ট প্রদানের মাধ্যমে সম্মানিত করা হয়। সভায় এলাকার মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান এবং রফিক দিদারকে কলেজের পমা থেকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এলাকার প্রাচীনতম ও সমৃদ্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা দ: সা: গোলাম বারী উচ্চ বিদ্যালয়, মরহুম আশরফ আলী চৌধুরী, লোহাগাড়া শাহপীর হাইস্কুলের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক মোহাম্মদ ইসমাইল এবং উত্তর আমিয়া হাইস্কুলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান বাবু ননীগোপাল দাশকে মরনোত্তর সংবর্ধনা প্রদান ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। মরহুমের সন্তানরা সন্তান যথা অলিউল্লাহ চৌধুরী, মোহাম্মদ জাহেদ ও অধ্যাপক উৎফুল কান্তি দাশ ক্রেস্ট গ্রহণ করেন। কলেজ কর্তৃপক্ষ এলাকার ২৫ জন গর্বিত পিতা-মাতাকে তাঁদের সন্তানদের উচ্চশিক্ষা লাভের স্বীকৃতি স্মরূপ সম্বধনা ও ক্রেস্ট প্রদান করেন। মাননীয় এমপি প্রফেসর ড: আবু রেজা নদভী এবং উপচার্য মহোদয়গণ সংবর্ধিত অতিথিদের ক্রেস্ট প্রদান করেন।
প্রধান অতিথি প্রফেসর ড: আবু রেজা নদভী কলেজের সামগ্রিক উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। অত্র কলেজে অনার্স, মাষ্টার্স কোর্স খোলার মাধ্যমে অত্র এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের বাড়ী থেকে এসে অনার্স ও মাষ্টার্স কোর্সে পড়ার সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়ায় কলেজ পরিচালনা কমিটি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। তিনি কলেজের সুন্দর মনোরম পরিবেশ এর জন্য সন্নিস্ট প্রকাশ করেন এবং ভবিষ্যতে আরো অবকাঠামো প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের চাহিদা পূরণের আশ্বাস দেন। তিনি কলেজের পরীক্ষার ফলাফল ভাল করার ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেন। যে সকল ছাত্র-ছাত্রী নির্বাচনী পরীক্ষায় পাশ করতে পারবেনা তাদের কোন অবস্থাতে ফরমপূরণের সুযোগ না দেয়ার জন্য নির্দেশ দেন। তিনি জানান মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অমান্য কারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশ অমান্য করে ফেল করা ছাত্র-ছাত্রীদের কোন অবস্থাতে ফরম পূরণ না করার জন্য অভিভাবক ও শিক্ষকদের সতর্ক করেন।
সভাপতির ভাষণে অধ্যক্ষ ড. রেজাউল করিম উক্ত কলেজকে আরো উন্নত ও লেখা পড়ার দিক দিয়ে চট্টগ্রামের বেসরকারী কলেজের মধ্যে শ্রেষ্ঠ কলেজে পরিণত করার জন্য সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

আরো খবর

Leave a Reply

Close