বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০১৯ ইং, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

চুলের যত্নে নারিকেল তেল কেন ব্যবহার করবেন

বহুবছর ধরে চুলের যত্নে নারিকেল তেলের উপর নির্ভর করছেন রূপসচেতন মানুষেরা। বিশেষ করে নারীর চুলের যত্নে নারিকেল তেল অপ্রতিদ্বন্দ্বী। তবে এর উপকারিতা সম্পর্কে না জানার কারণে অনেকেই নারিকেল তেলের ব্যবহার থেকে দূরে সরে আসছেন। অন্য যে তেলই ব্যবহার করুন না কেন, নিঃসন্দেহে নারিকেল তেলই আপনার চুলের জন্য সবচেয়ে উপকারী।

চুলের সুস্থতা ও সৌন্দর্য ধরে রাখতে আজ থেকে ব্যবহার করুন নারিকেল তেল। তার আগে জেনে নিন যেসব কারণে নারিকেল তেলের ব্যবহার বেশি উপকারী-

ডিপ কন্ডিশনিং

নারিকেল তেল দিয়ে ডিপ কন্ডিশনিংয়ের জন্য আপনার দরকার ভার্জিন অর্থাৎ প্রসেস না করা নারিকেল তেল। তেলটা হালকা গরম করে নিন। এবার চুল শ্যাম্পু করে তোয়ালে দিয়ে মুছে যতটা সম্ভব শুকিয়ে নিন। ড্রায়ার ব্যবহার করবেন না। এরপর গরম তেল সমস্ত চুলের গোড়ায় গোড়ায় ও স্ক্যাল্পে ভালো করে মাসাজ করুন। হয়ে গেলে ভালো করে আঁচড়ে নিন।

tel-2

এবার একটা তোয়ালে গরম পানিতে ভিজিয়ে ভালো করে নিংড়ে চুলে জড়িয়ে রাখুন। আধ ঘণ্টা পর তোয়ালে খুলে চুলে আর একবার শ্যাম্পু করে নিন। আর চুলে তেলটা রাখতে চাইলে পরের দিনও শ্যাম্পু করতে পারেন। অন্য যেকোনো তেলের চেয়ে নারিকেল তেল দ্রুত আপনার চুলে শোষিত হয়, চুল পুষ্টিও পায় ভরপুর।

খুশকি দূর করতে

নারিকেল তেল দিয়ে মোকাবিলা করুন খুসকির। রাতে শুতে যাওয়ার আগে চুলের গোড়ায় ও স্ক্যাল্পে গরম নারিকেল তেল দিয়ে মাসাজ করুন। তারপর আঁচড়ে জট ছাড়িয়ে আলগা একটা পনিটেল বেঁধে নিন। সকালে উঠে শ্যাম্পু করে নেবেন। সপ্তাহে দুদিন করলেই বিদায় নেবে খুশকি।

রোদ থেকে বাঁচাতে
নারিকেল তেল প্রাকৃতিক সানস্ক্রিন হিসেবে কাজ করে এবং রোদজনিত ক্ষতির হাত থেকে আপনার চুলকে বাঁচায়। সারা দিন রোদে থাকতে হলে সকালে উঠে চুলে কয়েক ফোঁটা নারিকেল তেল লাগিয়ে নিন। কড়া রোদেও চুল থাকবে সুরক্ষিত।

চুল রং করার আগে

চুলের রঙের সঙ্গে নারিকেল তেল মিশিয়ে নিলে তা চুলে তাড়াতাড়ি শুষে যায়, রংও হয় দীর্ঘস্থায়ী। গরম নারিকেল তেল হেয়ার কালার বা হেনার সঙ্গে মিশিয়ে নিন, তারপর চুলে লাগান। নির্দিষ্ট সময় রেখে তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে শ্যাম্পু করে নিন। প্রাকৃতিক, কালার সেফ শ্যাম্পু ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন।

আরো খবর

Leave a Reply