জানুয়ারি ১৭, ২০২২ ১:৫৪ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের উন্নয়নের রাজনীতি ও জাতীয় সংসদ নির্বাচন” শীর্ষক নাগরিক সংলাপ

 

চট্টগ্রামের টেকসই উন্নয়নের স্বার্থে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হবে। উন্নয়নের স্বার্থে রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে রাজনীতিবিদদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া প্রয়োজন। আমলাতান্ত্রিক জটিলতা নিরসন করে জনগনের স্বাভাবিক প্রত্যাশার বাস্তবায়ন নিরবিচ্ছিন্ন রাখতে হবে। সকল অর্জনের কারিগর রাজনীতিবিদ ও রাজনৈতিক দলকে জোট মহাজোট বা ফ্রন্টের মনোনয়ন জটিলতা কাটাতে নির্বাচনের মনোনয়নে তৃণমূল স¤পৃক্ত পেশাজীবী প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করতে হবে।
আজ শনিবার সকালে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সচেতন তরুণ প্রজন্মের আয়োজনে ও উদীয়মান বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনায় “চট্টগ্রামের উন্নয়নের রাজনীতি ও জাতীয় সংসদ নির্বাচন” শীর্ষক নাগরিক সংলাপে বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এতে চসিক মেয়রকে মন্ত্রী পদমর্যাদা প্রদানের দাবি সহ অন্ততঃ দুইডজন দাবি জানানো হয় ।
পেশাজীবী ও নাগরিক আন্দোলনের নেতা, বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংলাপটি উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী।
সচেতন তরুণ প্রজন্মের প্রধান সমন্বয়ক ম. মাহমদুর রহমান শাওনের সঞ্চালনা ও ‘উদীয়মান বাংলাদেশে’র আহবায়ক ইফতেখার উদ্দিন আহমেদের এর স্বাগত ভাষনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় সংলাপটি। এতে প্যানেল আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী আবুল মনসুর, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ(চউক) বোর্ড সদস্য ও চসিক কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, চট্টগ্রাম ওয়াসা বোর্ড সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু, ইসলামিক ফ্রন্ট চট্টগ্রাম উত্তর সভাপতি মোঃ নাঈম উল ইসলাম, বিজেপি কেন্দ্রিয় ভাইস চেয়ারম্যান জুনকান নাঈন, প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংগঠনের সভাপতি এম এ সবুর, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা স্মৃতি পরিষদ সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুর রহিম, প্রবীন রাজনীতিবিদ স্বপন সেন, চকরিয়া সমিতির সাধারণ সম্পাদক এম হামিদ হোছাইন, সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হাসনাত চৌধুরী, সমাজকর্মী নাজিম উদ্দিন চৌধুরী এ্যানেল, উন্নয়ন কর্মী নারগিস চৌধুরী, ইসলামী ছাত্রসেনার সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, সাংস্কৃতিক সংগঠক সজল দাশ, প্রজন্ম চট্টগ্রামের প্রধান নির্বাহী চৌধুরী জসিমুল হক, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টি নগর আহ্বায়ক সোমিয়া সালাম, নগর ছাত্রলীগ নেতা বোরহান চৌধুরী গিফারী, ছাত্রদল নেতা কায়ুমুর রশিদ বাবু, পূর্বাশার আলো’র সাধারণ সম্পাদক আবু নোমান রানা, হাটহাজারী ছাত্র সমিতির সভাপতি মোঃ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী, সংগঠক রোজি চৌধুরী, সাহাব উদ্দিন রাজু, সৈয়দ সামিদ, তারুণ্যের উল্লাস প্রধান সমন্বয়ক নোমান বিন খুরশীদ, সদস্য এ এস এম জাওয়ান নুর, আরিফুর রহমান জেবি, রেজোয়ান নাবিল হাসান প্রমুখ।
সংলাপে বক্তারা নগরীর সকল সেবা ও উন্নয়ন চসিক মেয়রের আওতায় আনা, সরকারী প্রতিষ্ঠানের পর্যক্রমের সমন্বয়, চট্টগ্রামে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চ স্থাপন, চট্টগ্রামের উন্নয়নের স্বার্থে রাজনীতিবিদ ও জনপ্রতিনিধিদের ঐক্যবদ্ধ থাকা, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা, উন্নয়ন কার্যক্রমে জনগূর্ভোগ কমানো, চট্টগ্রামে কেবিনেট মিটিং আয়োজন, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান কার্যলয় চট্টগ্রামে স্থাপন, নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি, তরুণদের সামাজিক কার্যক্রমে সম্পৃক্ত, শিশু ও প্রতিবন্ধিদের অধিকার নিশ্চিতকরণ, চট্টগ্রামে পোশাক শিল্পের বিশেষ অঞ্চল তৈরি, চসিক মেয়রকে মন্ত্রী পদমর্যাদা প্রদান, কর্ণফুলী নদীর ড্রেজিং, চট্টগ্রাম বন্দর আধুনিকায়ন ও নতুন আরো একটি বন্দর নির্মাণ, নাগরিক সচেতনতা সৃষ্টির দাবী জানান।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply