গাজীপুরে নবাগত পুলিশ সুপারের সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময়

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: আগস্ট ২৯, ২০১৮)

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি
গাজীপুরের নবাগত পুলিশ সুপার (এসপি) শামসুন্নাহার পিপিএম এর সাথে গাজীপুরে কর্মরত সাংবাদিকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৮ আগস্ট মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নতুন পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম সাংবাদিকদের কাছে তার পরিচয় উপস্থাপন করেন। সভা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ।

পরিচয় পর্ব শেষে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন গাজীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ খায়রুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রাহিম সরকার, সাবেক সভাপতি নাসির আহমেদ, মুকুল কুমার মল্লিক, মোঃ মুজিবুর রহমান ও মোঃ মাজহারুল ইসলাম মাসুম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইকবাল আহমেদ সরকার, মোঃ আমিনুল ইসলাম, সাংবাদিক ফজলুল হক মোড়ল, শরীফ আহমদ শামীম, মোঃ ইজাজ আহমেদ মিলন, মোঃ মনিরুজ্জামান, বেলাল হোসেন, রেজাউল বারী বাবুল, তানজিরুল ইসলাম প্রমুখ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রাসেল শেখ, গোলাম সবুর, পংকজ দত্ত, আমিনুল ইসলাম, এএসপি সালেহ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

সভায় সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সমস্যা, নানান ধরনের অভিযোগ, ও অনিয়ম তুলে ধরে এগুলো সমাধানে পুলিশ সুপারের ত্বরিৎ হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

পুলিশ সুপার তার বক্তব্যে গাজীপুরের ঐতিহ্য তুলে ধরে বিরাজমান সমস্যা ও অভিযোগ সমাধানে তার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, পুলিশের কোনো সদস্য অন্যায় করলে বা জনগণকে হয়রানি করলে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। আমরা গাজীপুরে জনবান্ধব পুলিশিং বাস্তবায়ন করতে চাই।

এসপি শামসুন্নাহার বলেন, তিনটি বিষয়ে আমি জিরো টলারেন্সের ভিত্তিতে কাজ করবো। সর্বোচ্চ শক্তি ও আন্তরিকতা দিয়ে জেলাকে পর্যায়ক্রমে মাদকমুক্ত, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন এবং সন্ত্রাস নির্মূল করবো।

তিনি আরও বলেন, গাজীপুরে পরিবহন সেক্টরে চাঁদাবাজি, সড়ক-মহাসড়কে লাইসেন্সবিহীন চালক এবং ফিটনেসবিহীন অবৈধ যানবাহন বন্ধ করা হবে। এ ব্যাপারে তিনি সাংবাদিকসহ গাজীপুরবাসীর সহযোগিত কামনা করেন।

গত ২৬ আগস্ট রবিবার এসপি শামসুন্নাহার গাজীপুরের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। এর আগে তিনি চাঁদপুরের পুলিশ সুপার ছিলেন।

সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত- নতুন পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার এর বাড়ি ফরিদপুর সদর উপজেলার চর মাধবদিয়া ইউনিয়নের কছিমুদ্দিন বেপারীর ডাঙ্গীতে। তার বাবা সামছুল হক ওরফে ভোলা মাস্টার ও মা আমিনা বেগম।

২০০১ সালে বিসিএস পাশ করে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিসে যোগদান করে তিনি মানিকগঞ্জ, ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ, পুলিশ সদর দপ্তর, ইতালী, পূর্ব তিমুর, ট্যুরিস্ট পুলিশ, পুলিশ সুপার চাঁদপুরসহ বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া ২০১১-২০১৪ পর্যন্ত জাতিসংঘের শাখা অফিস ইতালীতে উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন শামসুন্নাহার। ২০০৯-২০১০ পর্যন্ত পূর্ব তিমুরে জাতিসংঘ মিশনের মাধ্যমে পূর্ব তিমুর জাতীয় পুলিশের মানব সম্পদ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

তাছাড়া তিনি যুক্তরাজ্যের বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৭ সালে ঈযবাবহরহম ংপযড়ষধৎংযরঢ় এর মাধ্যমে এমবিএ ডিগ্রী লাভ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২০০৫ সালে এমফীল, ১৯৯৮ সালে এমএসএস এবং ১৯৯৬ সালে বিএসএস ডিগ্রী লাভ করেন তিনি।

এমনকি জাতিসংঘে দীর্ঘদিন উচ্চ পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালনের স্বীকৃতি স্বরূপ ৭ বার জাতিসংঘ শান্তি পদক লাভ করেন শামসুন্নাহার। এ ছাড়া বাংলাদেশ পুলিশে দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালনের স্বীকৃতি স্বরূপ ২ বার আইজি ব্যাজ পান তিনি।

পেশাগত ও ব্যাক্তিগত কারণেও তিনি যুক্তরাষ্ট, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানী, ইতালী, ভ্যাটিকান সিটি, মরক্কো, অষ্ট্রেলিয়া, পূর্ব তিমুর, সিংগাপুর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব, দুবাই, কাতারসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্রমন করেন।

এক ছেলে ও এক মেয়ের জননী তিনি।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password