বাংলাদেশ, বুধবার, ২৪শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং, ১১ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

বাকলিয়ায় পুলিশের নামেই চলছে জুয়ার আসর

চট্টগ্রামের বাকলিয়ায় পুলিশ ও আওয়ামী লীগের নামেই জুয়ার আসর  চলছে।স্হানীয় জসীম নামের এক জাত জুয়ারু এই জুয়ার আসর চালিয়ে ক্ষমতাসীন দল ও পুলিশ বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে চলেছে।কর্ণফুলী ব্রীজ উদ্ধোধনের সময় নির্মিত  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফলকটি ঢেকে দিয়ে  জুয়ারুরা আসর বসিয়ে অতি লোভে ফেলে পথচারীদের ফতুর করে দিচ্ছে।মাত্র ২০০গজের মধ্যে একই লোকেরা রাস্তার পশ্চিম পার্শ্বে তেরপাল টাঙ্গিয়ে ডাব্বু খেলা চালাচ্ছে।

স্হানীয় আওয়ামী লীগ ও পুলিশের নামে এই দুটো জুয়ার আসর প্রকাশ্য চললেও স্হানীয় মুছল্লি ও ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদ করতেও ভয় পাচ্ছে।চট্টগ্রামের মেয়র সৌদি আরবে হজ্বে অবস্হান করলেও তার দলের ছেলের নাম ব্যবহার করছে জাত জুয়ারু জসীম।পুলিশ কমিশনার ও ওসির সাথে তার গলায় গলায় ভাব এমন ভাব দেখিয়ে সবাইকে ডরভয় লাগিয়ে থাকে। সে জুয়ার টাকার দাপটে কাউকে পাত্তা দেয় না। এসব জুয়ার আসরে মোবাইল চোর, ছিনতাইকারী,পকেটমারচক্র,দরিদ্র রিকসাচালক, ক্ষুদে ব্যবসায়ীরা লোভের আশায় জুয়া খেলে। কোন বাধাঁ বিপত্তি ছাড়া এই আসরগুলো চলার কারণে নগরীর অপরাধীচক্রের সদস্যরা এখানে জড়ো হয়।ফলে এই এলাকায় ছিনতাই পকেটমারদের উপদ্রুব লেগেই আছে।এই বিষয়ে স্হানীয় কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন এই জুয়ার সাথে আমাদের কারও সম্পৃত্ত নেই।কেউ জড়িত থাকলে সে ক্ষমতাসীন দলের কেউ নয়।নাম জানলে তাদের দল থেকে বহিষ্কারের দাবী তুলব।

এই বিষয়ে বাকলিয়া থানার ওসির সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি তাৎক্ষনিকভাবে একজন এস আই এর নেতৃত্ব একদল ফোর্স পাঠান। ওই এস আই মফিজ ঘটনাস্হল ঘুরে আসলেও জুয়ার আসর খুজেঁ পাননি বলে এই প্রতিনিধিকে অবহিত করেন।অথচ প্রকাশ্য সারাদিন দুটো স্পটে জুয়ার আসর দৃশ্য চলার পথে হাজার হাজার মানুষ দেখেছে ও শত শত পথচারী জুয়ায় টাকা হারিয়ে নিঃশ্ব হয়ে ফিরে গেছে। জাত জুয়ারু জসীম আজো জুয়ারুদের অভয় দিয়ে বলেছে প্রতিদিন এখানে জুয়ার আসর চলবে।

 

আরো খবর

Leave a Reply