গ্যাসের দাম বৃদ্ধি অযৌক্তিক, এতে জনজীবন বিপর্যস্ত হবে-ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৭)

নিজস্ব প্রতিনিধি
গ্যাসের দাম বৃদ্ধি অযৌক্তিক, এতে জনজীবন আরো বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে। ক্ষমতার অতিলোভে সরকার বেহুশ হয়ে পড়েছে। জনগণের পকেট রাজস্ব বাড়ানোর অযৌক্তিক পদক্ষেপ নিচ্ছে বারংবার। সরকার গরীব মানুষদেরও ভ্যাটের আওতায় এনেছে। জনগণ এমনিতেই অর্থনৈতিকভাবে ত্রাহি অবস্থায় রয়েছে। আবারো গ্যাসের দাম বৃদ্ধি জনগণের জন্য ‘মরার উপর খাড়ার ঘাঁ’। গ্যাসের দাম বাড়ানোর ফলে সরকারের পছন্দের কিছু লোক লাভবান হবে ঠিকই, কিন্তু জনজীবন আরো বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে। দুই ধাপে গ্যাসের দাম বাড়ানোর নামে সরকার জনগণের সাথে তামাশা করেছে। গ্যাসের দাম বাড়িয়ে সরকার প্রমাণ করেছে, জনগণের প্রতি তাদের কোন দায়িত্ব নেই, দয়া-মায়া নেই। কারণ, তারা জনগণের সরকার নয়। জনস্বার্থে অবিলম্বে এই গণবিরোধী ও অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করার দাবি জানান বিএনপি’র নীতিনির্ধারক নেতা বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ও ভূতত্ত্ব বিজ্ঞানী ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ২৫ ফেব্রুয়ারি শনিবার কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার গৌরীপুর বিলকিস মোশাররফ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
পিলখানা ট্র্যাজিডি দিবসে বিএনপি নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ৫৭ জন সেনাকর্মকর্তাসহ নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং প্রকৃত অপরাধীদের শাস্তি প্রদানের মাধ্যমে দ্রুত বিচারকার্য সম্পন্ন করার দাবি জানান। তিনি বলেন, ‘দেশে এখন গণতন্ত্র ও সুশাসন অনুপস্থিত। সরকারের দু:শাসন আর ব্যর্থতা সকল ক্ষেত্রে। আইন-শৃংখলা বলতে কিছু নেই। এক বিভীষিকাময় অবস্থা বিরাজ করছে। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জনগণ আ.লীগকে আর ভোট দেবে না। তাই সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে সরকার ভয় পাচ্ছে। দেশে গণতন্ত্র ও জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য প্রয়োজন অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন। আর তাই সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠনের দাবি এখন গণদাবিতে পরিণত হয়েছে। নারী শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করে ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে ড. মোশাররফ বলেন, যে জাতি যত শিক্ষিত, সে জাতি তত উন্নত। উন্নত জাতি গঠনে নারী শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম। একজন নারী শিক্ষিত হলে তার সন্তান শিক্ষিত হবে, গোটা পরিবার শিক্ষিত হবে’। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে তোমরা নিজেদের আদর্শ নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবে। তোমরাই একদিন এই দেশকে মর্যাদাশীল উন্নত জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে’।
উক্ত অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো: আবুল হাসেমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিলকিস আকতার হোসেন, পরিচালক খন্দকার মাহবুব হোসেন, ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশন কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ড. খন্দকার মারুফ হোসেন। অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন ফাউন্ডেশনের সদস্য মো: সাদেক হোসেন, নূর মোহাম্মদ সেলিম, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (ভিপি), আরিফ মাহামুদ, সাহাব উদ্দিন ভূঁইয়া (ভিপি) ও সুপ্রীম কোর্টের এডভোকেট নাজমুল হুদা, প্রধান শিক্ষক মোঃ ওয়াহিদুর রহমান প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, কথাশিল্পী এস.এম মিজান।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password