বৃহস্পতিবার ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং, ২রা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

হাটহাজারীতে জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীর সভায় ব্যারিস্টার সাকিলা জনবিচ্ছিন্ন শেখ হাসিনা সরকার ক্রমশ দিশেহারা হয়ে পড়ছে

জনবিচ্ছিন্ন শেখ হাসিনা সরকার ক্রমশ দিশেহারা হয়ে পড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় বিএনপি নেত্রী ব্যারিস্টার সাকিলা ফারজানা। তিনি শুক্রবার চট্টগ্রামের আমানবাজার এলাকায় শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী ও সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের রোগমুক্তি কামনায় আয়োজিত দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় একথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমার পিতা আপনাদের সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। আমিও আপনাদের সেবা করতে চাই। আশাকরি আমাকে আপনারা সহযোগিতা করবেন।’ এ সময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আহমদ খলিল খান, উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি চাকসু ভিপি মো.নাজিম উদ্দিন, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সেকান্দর চৌধুরী, এডভোকেট আবু তাহের, সেলিম চেয়ারম্যান, সাবেক পিপি এডভোকেট মো.এনাম, হেফাজতের যুগ্ম মহাসবি মাওলানা রুহি, হাটহাজারী বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এডভোকেট সৈয়দ ফোরকান, আবুল হোসেন চেয়ারম্যান, কামাল উদ্দিন চেয়ারম্যান, হাকিম উদ্দিন, এডভোকেট রেজোয়ান নুর সিদ্দিকী উজ্জ্বল, মোস্তফা আলম মাসুম, দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ড বিএনপির আহ্বায়ক গাজী মো.ইউসুফ, হাজী হারুন চৌধুরী, গাজী মোরশেদুল আলম, পাহাড়তলী বিএনপি নেতা এস এম আবুল ফয়েজ, আবদুল্লাহ আল হারুন, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুদ্দিন সালাম মিঠু, রোখসানা জিনিয়া, মো.বেলাল, রহমত উল্লাহ, জয়নাল আবেদিন, সৈয়দ মহসীন, জাকির হোসেন মেম্বার, কাওনাইন চৌধুরী টিপু, হাটহাজারী যুবদলের আহ্বায়ক সাহেদুল আজম সাহেদ, মো.ইউনুস, সৈয়দ ইকবাল, উত্তর জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আরিফুর রহমান, চবি ছাত্রদলের নুরুল হুদা সোহেল, মো.শহিদুল ইসলাম, নিউটন দত্ত, মামুনুর রশিদ, ডা.মো.ইয়াছিন, রাশেদ আলী, রবি চৌধুরী, এনামুল হক, রবি চৌধুরী, একরাম হোসেন, আবদুল মুবিন, হাটহাজারী ছাত্রদলের আহ্বায়ক এস এম জাহেদ চৌধুরী , সদস্য সচিব গাজী মুবিন, যুগ্ম আহ্বায়ক গিয়াস উদ্দিন, তসিফ মনি, মিজানুর রহমান, হাসান মুরাদ চৌধুরী, মো.মামুন, রাহাত কবির, আরাফাত সিকদার প্রমুখ।

ব্যারিস্টার সাকিলা বলেন, ‘সরকার যে জনবিচ্ছিন্ন তার বড় প্রমাণ হচ্ছে প্রস্তাবিত বাজেট। বাজেটে অনির্বাচিত সরকার জনগণের ওপর করের বোঝা চাপিয়ে দিয়েছে। করের জালে আষ্টে-পৃষ্টে বেঁধে ফেলা হয়েছে জনগণকে। ১৫% ভ্যাট আরোপের মাধ্যমে নিম্ন আয়ের মানুষ থেকে শুরু করে গোটা জাতিকে এই করের বোঝা চাপিয়ে দেয়া হয়েছে। এই বাজেট সাধারণ মানুষের কোন কল্যাণ তো করবেই না, উল্টো সাধারণ মানুষের জন্য একটা বোঝা হয়ে দাঁড়াবে। শিক্ষা, চিকিৎসা খাতে বাজেট খুবই কম। বেশি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মেগা প্রজেক্টে। এই মেগা প্রজেক্টে মেগা কস্টিং হবে, মেগা দুর্নীতি হবে, মেগা পকেট ভারি হবে। দেশের মানুষের টাকা পকেট ভারি করে বিদেশে পাচার করবে। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বিত্তবান হয়ে দেশ থেকে পালাবে। আর এ বোঝার ঋণ আমাদেরকে বহন করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান কর্তৃক শক্ত ভীতে দাঁড়ানো অর্থনীতি পরিকল্পিতভাবে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। লুটপাটের প্রস্তাবিত বাজেট তারই একটি উপসর্গ। চট্টগ্রাম সবসময় আন্দোলনের সূতিকাগার। বর্তমান এই স্বৈরাচারী সরকার পতনের আন্দোলন চট্টগ্রাম থেকেই শুরু হবে। সরকার যদি মনে করে ২০১৮ সালের ভোট ২০১৪ সালের মত হবে তাহলে তারা ভুল করবে। একটি নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের মাধমে আগামী জাতীয় নির্বাচন না দিলে সে নির্বাচন জনগণ মেনে নিবে না। তাই কোন রকম ষড়যন্ত্রে পা দেয়া যাবে না।’ তিনি সরকার পতনের চূড়ান্ত আন্দোলনের প্রস্তুতি গ্রহণ করতে সকলের প্রতি আহবান জানান।

ক্যাপশন: হাটহাজারীতে জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন ব্যারিস্টার সাকিলা ফারজানা।

Categories: মৃত্যু বার্ষিকী স্মরণ সভা

Leave A Reply

Cheap Reseller Hosting in Bangladesh