বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আলোচিত টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ প্রত্যাহার

অবশেষে আলোচিত  টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তাঁর স্হলে যোগ দিয়েছেন এবিএম দোহা।

টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানের বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস বুধবার সকালে কক্সবাজারে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার করেন।ওই মামলায় ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ নয়জনকে আসামি করা হয়। এরপর ওসিকে প্রত্যাহার করা হয়  জানা গেছে।

                                         মামলার এজাহারে শারমিন যা উল্লেখ করেন

মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানকে গুলি করার আগে বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলী টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে ফোন দেন। তাঁর নির্দেশ পেয়ে লিয়াকত আলী বলেন, ‘ঠিক আছে স্যার, … শেষ কইরা দিতাছি।’ এরপরই মেজর (অব.) সিনহার শরীরের ওপরের দিকে কয়েক রাউন্ড গুলি করেন লিয়াকত আলী। গুলির আঘাতে সিনহা রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে যান এবং নিজের জীবন বাঁচাতে ঘটনাস্থল থেকে উঠে পালানোর চেষ্টা করলে অন্য আসামিরা তাঁকে চেপে ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। তখন সিনহাকে আরও এক রাউন্ড গুলি করা হয়। এরপর ঘটনাস্থলে প্রদীপ কুমার দাশ হাজির হন। তিনি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকা সিনহার শরীরে ও মুখে কয়েকটি লাথি মেরে মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হন। তিনি মৃতদেহের মুখ বিকৃত করার চেষ্টা করেন।

প্রসংগত ওসি প্রদীপ কুমার দাশের আরো দুইভাই পুলিশ বিভাগে রয়েছেন। দীলিপ কুমার দাশ ডিআইজি অফিসে ছিলেন ও সদীপ কুমার দাশ বর্তমানে ডবলমুরিং থানার ওসি হিসেবে কর্মরত আছেন।

 

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply