বাংলাদেশ, শনিবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ড. ইউনূস বিনা মূল্যে টিকার জন্য ‘সামাজিক ব্যবসায় নামছেন’

পৃথিবীবাসীর জন্য বিনা মূল্যে টিকার ব্যবস্থা করতে নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূস ‘গ্লোবাল ফার্মাসিউটিক্যালস সোশ্যাল বিজনেসের’ পার্টনার খোঁজার কথা জানিয়েছেন।

আরব নিউজকে দেয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে শনিবার ড. ইউনূস এ বিষয়ে নিজের পরিকল্পনার কথা জানান।

আরব নিউজে বলা হয়েছে, ভ্যাকসিন গবেষণায় বিশাল বিনিয়োগ এবং বেসরকারিখাতে অনেক ল্যাবরেটরির দরকার হয়। করোনাভাইরাসের টিকা যাতে উন্মুক্ত করা যায়, সে জন্য ড. ইউনূস বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে এ বিষয়ে একটি পরিকল্পনা তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন।

‘এ জন্য যত দ্রুত সম্ভব আমরা গ্লোবাল ফার্মাসিউটিক্যালস সোশ্যাল বিজনেস পরিচালনায় মনস্থির করেছি। লক্ষ্য অর্জনে সাহায্যের জন্য আমি পার্টনার খুঁজছি।’

মালিকানামুক্ত টিকার জন্য ড. ইউনূস ইতিমধ্যে একটি ক্যাম্পেইন চালু করেছেন। সেখানে গোটা বিশ্ব থেকে শতাধিক নামকরা ব্যক্তি একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।

এই আবেদনে সামিল হওয়া নোবেল বিজয়ীদের মধ্যে রয়েছেন তাওয়াক্কল কামরান, শিরিন এবাদি, মিখাইল গরবাচেভ, মালালা ইউসুফজাই, আর্চ বিশপ ডেসমণ্ড টুটু। সাবেক সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানদের মধ্যে রয়েছেন ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী গরডন ব্রাউন, ইতালির সাবেক প্রধানমন্ত্রী রোমানো প্রদি, নিউজিল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী হেলেন ক্লার্ক, মরিশাসের সাবেক রাষ্ট্রপতি আমিনাহ গুরিব-ফাকিম এবং পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শওকত আজিজ।

শুক্রবার পর্যন্ত মোট ১১২ জন বিখ্যাত ব্যক্তি একাত্মতা প্রকাশ করেছেন। এই ওয়েবসাইটে (www.vaccinecommongood.org) গিয়ে যে কেউ ক্যাম্পেইনে অংশ নিতে পারবেন।

‘আমি মনে করি এই মহামারী সমূলে উৎপাটন করতে হলে আমাদের গ্রহের সব বাসিন্দাকে ভ্যাকসিন দিতে হবে,’ মন্তব্য করে ইউনূস বলেন, ‘প্রায় একই সময়ে সব মানুষকে ভ্যাকসিন দিতে হলে এটি মালিকানামুক্ত হতে হবে।’

‘করোনার টিকা ব্যবসায়ীক লাভমুক্ত হতে হবে। পোলিও ভ্যাকসিনে সবাই যেন সুবিধা পায়, সেই ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এটি কারো মালিকানাধীন নয়। তাহলে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে কেন একই পথ অনুসরণ করা হবে না?’

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply