বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং, ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

বিশ্রামগার নাকি লেপ-বালিশ রাখার জায়গা?

 

বখতিয়ার ঈবনে জীবন

নামে মাত্র প্রথম শ্রেনীর বিশ্রামগার,নেই যাত্রীদের বসার কোন সুবিধা। কতিপয় ব্যাক্তিদের দখলে থাকা এ বিশ্রামগারটিতে বর্তমানে ট্রেনের লেপ-বালিশ রাখার স্থান হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
ডোমার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী রেলওয়ে ষ্টেশন (এক সময়ের স্থলবন্দর) চিলাহাটিতে বর্তমানে ৫টি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করে। পাশ্ববর্তী পঞ্চগড় জেলার বোদা,পঞ্চগড়,আটোয়ারী,ভাউলাগঞ্জসহ দূর-ধুরান্ত থেকে বিভিন্ন এলাকার ট্রেন ধরতে আসা যাত্রীরা বিপাকে পরে। বিশেষ করে ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীলসাগর ট্রেনের যাত্রীরা প্রথম শ্রেনীর বিশ্রামগার থাকা সত্বেও এই শীতে প্লাটফর্মে বসে থাকতে হয়। নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারী থেকে আসা যাত্রী জানান,প্রথম শ্রেনীর টিকেট কাটলেও ট্রেন দেড়ীতে আসায় এই শীতে পরিবার পরিজন নিয়ে প্লাটফর্মে বসে থাকতে হচ্ছে। বিশেষ করে প্রথম শ্রেনীর মহিলা যাত্রীরা টয়লেটের জন্য পাশ্ববর্তী বাড়ীতে যান। যাত্রীদের দাবী প্রথম শ্রেনীর বিশ্রামগারটি প্রথম শ্রেনীর যত্রীদের জন্য হোক, লেপ-বালিশ রাখার জন্য নয়।
এ ব্যাপারে চিলাহাটি ষ্টেশন মাষ্টর আনোয়ার হোসেন জানান, আমি শুরু থেকে এসে এ অবস্থা দেখি,বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষর সাথে আলোচনা করবো।

আরো খবর

Leave a Reply