বাংলাদেশ, শনিবার, ২০শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং, ৭ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

যবেহ পদ্ধতি ও উপকরণ শীর্ষক সেমিনার

জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল আলিয়া মাদরাসার ফাযিল স্নাতক সম্মান শ্রেণির উদ্যোগে ইসলামের দৃষ্টিতে যবেহ্ পদ্ধতি ও উপকরণ শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা বলেছেন, আধুনিক বিশ্বে এখন মেশিনের সাহায্যে হালাল পশু যবেহ করার পদ্বতি চালু হয়েছে। তা কতটুকু ইসলাম সম্মত, জানা অতিব জরুরী। যেমন, একের অধিক পশু যদি যবেহ এক সাথে হয়, তাহলে শুরুতে একবার বিসমিল্লাহ সহকারে আল্লাহর নাম বললে তা হালাল হবে। আর যদি পর পর যবেহ হয়, তখন মাত্র একবার বিসমিল্লাহ বললে ঐ পশু হালাল হবেনা। যাবের অর্থাৎ যবেহকারিকে অবশ্যই মুসলমান এবং যবেহ সম্পর্কে উপযুক্ত ধারনা থাকতে হবে। বক্তারা আরো বলেন,অনেক দেশে দেখা যায় পশুকে যবেহর আগে মাথায় আঘাত করে বেহুশ করে, যা শরিয়ত সম্মত নয়, অপ্রাপ্ত, অনভিজ্ঞ ও মানসিক রোগি দ্বারা পশু যবেহ করলে তা হালাল হবেনা। ইসলামের প্রতি আনুগত্য ও যবেহ’র নিয়ম না জানা ব্যক্তিও পশু যবেহ করতে পারবেনা। যবেহের স্থানের জন্য শর্ত হলো যবেহ করার সময় প্রানীর কণ্ঠনালী ও চোয়ালের মাঝখানে যবেহ করতে হবে এবং কমপক্ষে তিনটি রগ কাটা যেতে হবে। সেমিনারে বিভিন্ন বিষয়ের উপর গুরুত্বপুর্ন আলোচনায় অংশ নেন, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ আল্লামা হাফেজ সোলাইমান আনসারি, ফকিহ আল্লামা মুফতি সৈয়দ অছিয়র রহমান আলকাদেরি,আল্লামা মুফতি কাজি আব্দুল ওয়াজেদ আলকাদেরী। আল কুরআন এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগীয় প্রধান মাওলানা মুহাম্মদ জিয়াউল হক রেজভীর সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,শিক্ষক মাওলানা মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ আল আজহারি,মুহাম্মদ রবিউল আলম,ছাত্রদের মধ্যে লিখিত প্রবন্ধ পাঠ করেন আল কুরআন এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মুহাম্মদ মোজাম্মেল আজিম ত্বোহা, মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, মুহাম্মদ ইব্রাহিম প্রমুখ।

আরো খবর

Leave a Reply