মৌলভীবাজারে হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সভা ২০ রমজানের মধ্যে মাসিক বেতনের সমপরিমান ঈদ বোনাস প্রদানের দাবি

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: জুন ১৩, ২০১৭)

মৌলভীবাজার জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং চট্ট ২৩০৫-এর এক সভা থেকে আগামী ২০ রমজানের মধ্যে সকল হোটেল শ্রমিকদের মাসিক বেতনের সমপরিমান ঈদ উৎসব বোনাস প্রদানের দাবি জানিয়েছে। ১২ জুন সোমবার সন্ধ্যার পর জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন চৌমুহনাস্থ কার্যালয়ে সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সহ-সভাপতি আব্দুল আজিজ প্রধান। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহিন মিয়া, কোষাধ্যক্ষ তারেশ বিশ্বাস সুমন, হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি মোঃ সুফী মিয়া, সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল আহমেদ সুবেল, প্রচার সম্পাদক জুবায়ের আহমেদ প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন শ্রমিকদের হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমে মালিকদের পুঁজি আরাম-আয়েশ বৃদ্ধি হয় আর শ্রমিকদের সৃষ্ট মুনাফায় মালিকপক্ষ মহাধুমধামে ঈদ উৎযাপন করেন। কিন্তু ঈদের সময় হোটেল শ্রমিকদের কোন উৎসব বোনাস প্রদান করা হয় না। ২০০৯ সালের পর সরকার নতুন করে গত ১ মার্চ ২০১৭ হোটেল শ্রমিকদের জন্য নি¤œতম মজুরির গেজেট(এসআরও নং ৩৮-আইন/২০১৭) প্রকাশ করেন, বর্তমান ঊর্দ্ধগতির বাজারদরে সরকার ঘোষিত মজুরিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে একজন শ্রমিক ১০ দিনও চলতে পারবে না। তারপরও মালিকরা সরকার ঘোষিত নি¤œতম মজুরি কার্যকর করছেন না। এছাড়া ২০১৫ সালের ২ জুলাই শ্রীমঙ্গলস্থ উপ-শ্রম পরিচালকের মধ্যস্থতায় বিনা বেতনে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ, মাসিক বেতনের সমপরিমান ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহায় উৎসব বোনাস প্রদান এবং সরকার ঘোষিত নি¤œতম মজুরির গেজেট ও শ্রম আইন বাস্তবায়নের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার হোটেল রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতি ও মৌলভীবাজার জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং চট্টঃ ২৩০৫ এর মধ্যে লিখিত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। অথচ হোটেল মালিকরা সরকারী আইন ও চুক্তি লঙ্ঘন করে সম্পূর্ণ বেআইনীভাবে এই সকল কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। শ্রমিকরা তাদের আইনসঙ্গত অধিকার বাস্তবায়নের জন্য মাননীয় জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপ-শ্রম পরিচালক, উপ-মহা পরিদর্শক(শ্রম দপ্তর), চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি, ব্যবসায়ী সমিতি ও হোটেল মালিক সমিতিসহ সংশ্লিষ্টদের বার বার লিখিতভাবে আবেদন নিবেদন করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না। হোটেল শ্রমিকরা দৈনিক ১০/১২ ঘন্টা অমানবিক পরিশ্রম করে অর্ধাহারে-অনাহারে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করতে বাধ্য হন, যার কারণে হোটেল শ্রমিকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। সভায় আগামী ২০ রমজানের মধ্যে হোটেল শ্রমিকদের উৎসব বোনাস প্রদান করা না হলে আগামী ২০ রমজান হোটেল শ্রমিকরা বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

সভা আগামী ২০ রমজানের মধ্যে সকল হোটেল শ্রমিকদের মাসিক বেতনের সমপরিমান ঈদ উৎসব বোনাস প্রদান, হোটেল সেক্টরে সরকার ঘোষিত  মজুরি ও ৮ ঘন্টা কর্মদিবস, নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র, সার্ভিস বুক প্রদানসহ শ্রম আইন কার্যকর করার দাবি জানান।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password