ছাত্রসেনা চন্দনাইশ উপজেলার মহান স্বাধীনতা দিবসে বক্তারা স্বাধীনতা দিবসের মাধ্যমে সূচনা হয় বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশের জনগণের সৃজনশীল কর্মের নতুন অধ্যায়

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: মার্চ ৩০, ২০১৭)

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চন্দনাইশ উপজেলার উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন ও কাউন্সিল-১৭ গত ২৬ মার্চ রবিবার সকাল ১০টায় জোয়ারা কানন কমিউনিটি সেন্টারে মুহাম্মদ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রচার সচিব জননেতা মাওলানা মুহাম্মদ রেজাউল করিম তালুকদার। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধকালে ওলী আল্লাহর বাংলাদেশ, শহীদ গাজীর বাংলাদেশ বলে যে শ্লোগান দেওয়া হয়েছিল তা সর্বসাধারণকে প্রেরণা যুগিয়েছিল। স্বাধীনতা দিবসের মাধ্যমে সূচনা হয় বিশ্বের মানচিত্রে গর্বিত অবস্থান গ্রহণকারী বাংলাদেশের জনগণের সৃজনশীল কর্মের নতুন অধ্যায়। এ দিনটিকে তাই এই জাতি স্মরণ করে আত্ম প্রত্যয়ের প্রতীকরূপে। মনে রেখেছে হাজার বছরের ইতিহাসে জাতীয় স্বাতন্ত্র্যের দিগদর্শনরূপে। সভায় সংবর্ধিয় অতিথি ছিলেন যুবসেনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সহ-সাধারণ সম্পাদক যুবনেতা মুহাম্মদ মামুন উদ্দীন সিদ্দিকী, ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় পরিষদের সি. সহ-সভাপতি ছাত্রনেতা জি এম শাহাদত হোসাইন মানিক, ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা শাহজাদা নিজামুল করিম সুজন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মাওলানা আবুল কাশেম আনসারি, মাওলানা সিদ্দিক আহমদ নঈমী, জননেতা আলমগীর ইসলাম বঈদী, যুবনেতা মাওলানা নাসির উদ্দীন, যুবনেতা শহিদুল ইসলাম, আবু ইউসুফ নূর, মুহাম্মদ এনামুল হক। প্রধান বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা নুরুল ইসলাম হিরু। নির্বাচন কমিশনার ছিলেন ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা আমিনুল ইসলাম রুবেল। বিশেষ বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা মোরশেদুল আলম। মুহাম্মদ আবদুল মুবিনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন নুরুল আজম, মুহাম্মদ জুন্নুরাইন, রিদওয়ান সাজ্জাদ, মোরশেদুল আলম, হাফেজ আবদুল কাদের, ওসমান শাহাদাৎ, আরাফাত হোসেন, শাহ নেওয়াজ শুভ প্রমুখ। শেষে কাউন্সিল অধিবেশনে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চন্দনাইশ উপজেলা ২০১৭-১৮ সেশনের জন্য শফিকুল ইসলামকে সভাপতি, মুহাম্মদ ওসমান রেজাকে সাধারণ সম্পাদক ও আব্দুল মুবিনকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৩৩জন বিশিষ্ট কার্যকরি পরিষদ গঠিত হয়।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password