বাংলাদেশ, রবিবার, ১৬ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১লা ভাদ্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নিউ জার্সির হাডসন নদী থেকে বাংলাদেশি তরুণ-তরুণীর লাশ উদ্ধার

বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক
যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের হাডসন নদী থেকে বাংলাদেশি তরুণসহ এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত শনিবার বিকেলে হাডসন নদী থেকে পুলিশ মৃতদেহ দু’টি উদ্ধার করেছে। উমাইর সালেহ নামের তরুণটির বয়স ২৩ বছর। নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের এডিসন শহরের বাসিন্দা বাংলাদেশি ওই তরুণসহ অজ্ঞাত তরুনীকে খুন করে কেবা-কারা নদীতে ফেলে দিয়েছে বলে পুলিশ ধারণা করছে্ন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এ খবর জানিয়েছে।
স্থানীয় হাডসন কাউন্টির কৌসুলি এসথার সুয়ারেজ জানান, শনিবার সকালে জার্সি সিটির মরিস ক্যানেল পার্কের অদূরে হাডসন নদীতে একটি মৃতদেহ ভেসে থাকতে দেখেন এক পথচারি। তিনি ফোন করে বিষয়টি পুলিশকে জানানোর পর পৌনে ৮টার দিকে পুলিশ সেখানে গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে। সেটি ছিল এক তরুণীর মৃতদেহ, যার বয়স আনুমানিক ২২ বছর। মেয়েটি নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের বাসিন্দা ছিল। তার প্রকৃত পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।
প্রায় ৫ ঘন্টা পর মরিস ক্যানেল পার্কের ৫০ ফুট দূরে হাডসন নদীতে আরেকটি মৃতদেহ ভাসতে দেখে পথচারিরা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এই লাশ উদ্ধার করার পর দেখতে পায় যে সেটি এক তরুণের মৃতদেহ। তার পকেটে থাকা পরিচয়পত্র দেখে জানা যায় যে, তার নাম উমাইর সালেহ এবং নিউ জার্সির এডিসন শহরে তার বাড়ি। তার পরিবারকে খবর দেয়া হলে তারা এসে মৃতদেহ শনাক্ত করেন। তার মাথায় বেশ কয়েকটি আঘাতের চিহ্ন ছিল।
উমায়ের সালেহ’র মা একজন অভিবাসী বাংলাদেশি এবং তিনি স্কুলে শিক্ষকতা করেন। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন যে, তার মেধাবী ছেলে নিউ জার্সির রাটগার্টস ইউনিভার্সিটি থেকে এ বছরই প্রেসিডেন্ট অ্যাওয়ার্ডসহ গ্রাজুয়েশন করেছে। শনিবার বিকেলে সে হাঁটতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর আর ফেরেনি। সালেহ সাঁতার জানতো বলেও জানায় তার মা। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।
উল্লেখ্য, নিউ ইয়র্ক ও নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের মধ্যবর্তী নদীটির নাম হাডসন। এই নদীর পূর্বপাশে নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটন নগরী এবং পশ্চিম তীরে নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের জার্সি সিটি। প্রচুর পরিমান বাংলাদেশি সেখানে বাস করেন।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply