আফাজুল্লাহ দোভাষী জামে মসজিদ রক্ষানাবেক্ষণ জরুরী

  প্রিন্ট
(Last Updated On: আগস্ট ২, ২০১৮)

বাশঁখালী ঘুরে এসে হোসেন বাবলা
সকল ধর্মপ্রান মানুষ প্রায় বলে থাকেন মসজিদ আল্লাহর ঘর বা কাবা । আর সে জন্যই যুগেযুগে ধর্মীয় প্রজ্ঞাগন ধর্মকর্ম পালন, প্রচার-প্রসারতায়ে মসজিদ,মাদ্রাসা,এবাদত খানা কে প্রথম – প্রধান হিসেবে জানতো ও মানতো। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে চট্টগ্রামের বাশঁখালী উপজেলার অন্তর্গত ৩নং খানখানা বাদের রায়ছড়া ইউপির সুন্দপীপাড়ার শত বৎসরের পুরাতন ”আফাজুল্লাহ দোভাষী জামে মসজিদ”কে এলাকার কিছু উৎসহী ধর্মভীরু মানুষ প্রায় ১শত বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন জনৈক সমাজ ঐতিষি জনাব ”আফাজুল্লাহ দোভাষী”।  কিন্তু দীর্ঘ সময়ে কালের বিবর্তনে দীর্ঘদিন রক্ষানাবেক্ষণ আর অযত্ম-অবহেলা সুষ্ট তদারকি ও পরিচালনার অভাবে জামে মসজিদটি ঝরাজীর্ন্য অবস্থায় এবং প্রায় ধবংসের পথে। যাহাতে কোন ভাবে ইবাদত,ধর্ম-কর্ম ও ওয়াক্তি নামাজ আদায়ে চরম ব্যাঘাত ঘটছে।
রায়ছড়া ইউপির সুন্দপীপাড়ার মাত্র ১২০০(এক হাজার দুই শত) জনসংখ্যার প্রায় সবাই অনেকটাই হত দরিদ্র বলে বাশঁখালী উপজেলার অফিস সূত্রে জানা গেছে। যার ফল শ্রুতিতে শত বৎসরের পুরাতন ”আফাজুল্লাহ দোভাষী জামে মসজিদ”টিকে সঠিক ভাবে আর্থিক সহায়তা উন্নয়ন করা ঐ হত দরিদ্র লোকওে পক্ষে সম্ভব পর হচ্ছে না।
এছাড়া ৩নং খানখানা রায়ছড়া ইউপির সুন্দপীপাড়ার অধিকাংশ সাগরের সন্নিকটে হওয়াতেই সাগরের জেয়াঁর-ভাটার পানি উঠা নামা করায় মসজিদের বিভিন্ন অংশে সাগরের লোনা পানিতে ক্ষতি হচ্ছে শত বৎসরের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামোর অংশ।মসজিদ থেকে ৪০/৫০গজের দুরত্বে থাকা সাগারের পানি প্রতিরোধক বেড়ী বাধঁটি বর্তমান সময়ে বেশকয়েকটি ঘূর্নিঝড় ও জলোচ্ছাসের ফলে বিলিন হয়ে প্রতিনিয়তই জোয়ারের পানি হাটুঁ-থেকে কোমর সমান জমে গিয়ে মসজিদ আঙিনা সহ আশ-পাশের স্থান কে প্লাবিত করেছে।আর এতে দৈনিক ধর্ম-কর্ম,সকালে শিশু-কিশোর দের ইবতেদায়ী এবং কোরআনী-ফোরখানী শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রায়ছড়া ইউপি সুন্দপীপাড়ার শত শত নব-প্রজন্মরা। যা শিক্ষার আলোর থেকে ও ছিটকে পড়া বটে।
এদিকে ঐ এলাকার কিছু উৎসুক সচেতন,ছাত্র-জনতা এবং দেশ-বিদেশের নিঃস্বার্থবান যুব-প্রবাসীরা সম্মিলিত হয়ে ”সুন্দপী পাড়া উন্নয়ন ফোরাম ”গঠন করে গত ২০/০৬/২০১৮ইং হতে শত বৎসরের পুরাতন ”আফাজুল্লাহ দোভাষী জামে মসজিদ”টিকে পাচঁ ওয়াক্ত নামাজ,জুমার নানাজ আদায় করার উপযোগি করে তুলেন।অন্যান্য উপায়ে সামনে দুই ঈদের নামাজ আদায় ও পরিপূর্ন্য মসজিদে রূপায়নের জন্য একটি বিশাল ফান্ড গঠন প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন ফোরামের দুই প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ শফিক ও মোঃ নুর উদ্দিন ।
মহতী উদ্যোগের উক্ত সংগঠন ”সুন্দপী পাড়া উন্নয়ন ফোরাম”এর সকল সদস্যরা প্রতিবেদক আরো জানান ঝরাজীর্ন মসজিদ কে পূনরায় সংস্কার সহ আধুনিক ভাবে সাজাতে প্রায় ২০/৩০লাখ টাকার প্রয়োজন বলে ধারনা করেছেন। যা আমাদের এই রায়ছড়া ইউপির সুন্দপীপাড়ার বাসিন্দাদের পক্ষে প্রায় অসম্ভব।
তাই সমাজের ধর্মপ্রাণ দানশীল ব্যক্তি, বিত্তবান-শিল্পপ্রতি এবং প্রবাসী শিল্প মালিক,সরকারের ধর্মমন্ত্রনালয়,স্থানীয় পল্লি উন্নয়ন(সংসদ সদস্য),জেলা প্রশাসক ওউপজেলা চেয়ারম্যান কে বিষয়টি সরজমিনে পরিদশর্নকরে বাশঁখালী উপজেলার ৩নং খানখানা বাদের রায়ছড়া ইউপি সুন্দপীপাড়াস্থ ঐতিহাসিক”আফাজুল্লাহ দোভাষী জামে মসজিদ”কে আর্থিক সহায়তা সহ অবকাঠামো উন্নয়নে এগিয়ে আসার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানানো যাচ্ছে। আশা করি যতাযথ কর্ক্ষৃপক্ষ”আফাজুল্লাহ দোভাষী জামে মসজিদ”’র প্রতি রক্ষানাবেক্ষনে সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password