টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমায় লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: জানুয়ারি ১২, ২০১৮)

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক)
গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে শুক্রবার বাদ ফজর থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

৫৩তম বিশ্ব ইজতেমায় ১২ জানুয়ারি শুক্রবার দুপুরে পৌনে ২টার দিকে জুমার নামাজ শুরু হয়। ধর্মপ্রাণ লাখো মুসল্লির অংশগ্রহণে জুমার নামাজ আদায় হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছেন দেশ-বিদেশের কয়েক লাখ মুসুল্লি।

জুমার নামাজে ইমামতি করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ যোবায়ের। নামাজে অংশ নিতে জনসমুদ্রে পরিণত হয় ইজতেমা ময়দান। ঢাকা-গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকার লাখ লাখ মুসল্লি নামাজে অংশ নেন।

ইজতেমা ময়দান ছাড়াও মুসল্লিরা সড়ক-মহাসড়ক ও অলি-গলিসহ বিভিন্ন স্থানে পাটি, চটের বস্তা, খবরের কাগজ, চাদর ও পলিথিন বিছিয়ে নামাজে অংশ নেন।

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী এডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি আবু কালাম সিদ্দিক, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ডঃ দেওয়ান মোঃ হুমায়ুন কবীর, গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ ইজতেমাস্থলে জুমার নামাজে অংশ নেন।

১৪ জানুয়ারি রবিবার পর্যন্ত তিনদিন ব্যাপী তাবলীগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বীরা আখলাক, ঈমান ও আমলের ওপর বয়ান করবেন।

তাবলীগ জামাতের শীর্ষ স্থানীয় মুরুব্বীরা আরবি ও উর্দুতে বয়ান করবেন এবং মুসল্লিদের সুবিধার্থে তা বাংলা তরজমা করা হবে। এছাড়াও এসব বয়ান ইংরেজি, ফার্সি ভাষায় তরজমা করা হবে। দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি আল্লাহকে রাজি-খুশি করানোর জন্য এবং আখলাক ঠিক রাখতে বয়ান শুনবেন।

আম বয়ানে শুরু বিশ্ব ইজতেমা ঃ শুক্রবার ফজরের নামাযের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ইজতেমা শুরু হয়।

জর্ডানের মাওলানা শেখ ওমর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমা শুরু করেন। বাংলায় অনুবাদ করেন বাংলাদেশের আব্দুল মতিন। অর্ধশতাধিক দেশের ৬-৭ হাজার বিদেশি মেহমান ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ১৬টি জেলার কয়েক লাখ মুসুল্লি এই পর্বে অংশ নিচ্ছেন। তবে প্রচণ্ড শীত ও তাবলিগ জামাতের শূরা সদস্য দিল্লীর মাওলানা সাদ কান্ধলভী ইজতেমায় অংশ না নেওয়ায় তাঁর অনুসারিরা অনেকেই ইজতেমায় আসেননি বলে জানা গেছে।

এর আগে ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা ১০ জানুয়ারি বুধবার থেকে টঙ্গীর তুরাগ তীরে ইজতেমা ময়দানে এসে চটের তৈরি সুবিশাল ছামিয়ানার নিচে অবস্থান নেন। এবার বিদেশিসহ দেশের ১৬ জেলা থেকে আসা মুসল্লিরা অংশ নিয়েছে ইজতেমায়।

আগামী ১৯ জানুয়ারি শুক্রবার শুরু হবে দ্বিতীয় পর্ব। একইভাবে আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে ২১ জানুয়ারি রবিবার শেষ হবে এবারের (২০১৮ সালের) বিশ্ব ইজতেমা।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password