বাংলাদেশ, শনিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

খুনি-সন্ত্রাসী-অপরাধীরা কোনো সাজা পায় না, ফলে তারা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে

বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদে মিল্লাত আল্লামা নুরুল ইসলাম ফারুকী (রহ.) এর ৩য় শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে গত ২৮ আগস্ট ২০১৭ইং বেলা ১১ ঘটিকায় নগরীর চাক্তাই চামড়া গুদাম হতে আনসার ক্লাব চত্বরে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা ৩৫নং বক্সির হাট ওয়ার্ড শাখার উদ্যোগে এক বিক্ষোভ ও আলোচনা সভা সংগঠনের সভাপতি আব্দুল্লাহ মুহাম্মদ নুরুল আবসারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত বিক্ষোভ ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর ইসলাম বঈদী। উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রসেনা কোতোয়ালী থানা শাখার সভাপতি ছাত্রনেতা মহিউদ্দিন ক্বাদেরী। প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা কোতোয়ালী থানা সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান বাহার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রসেনা ৩৪নং পাথরঘাটা ওয়ার্ড শাখার সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউল মোস্তফা জামশেদ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলমগীর ইসলাম বঈদী বলেন, খুনি-সন্ত্রাসী-অপরাধীরা কোনো সাজা পায় না, ফলে তারা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে। এভাবে বিচারহীনতার সংস্কৃতি জিইয়ে থাকলে এবং আইনের শাসনের সংকট চলতে থাকলে দেশ বর্বরদের অধিকারে চলে যাবে। যা কিছুতেই হতে দেওয়া যায় না। অথচ ক্ষমতাবানরা নানা অপরাধ ও খুন খারাবি দমনে কঠোর হলে দেশের চিত্রই পাল্টে যাবে।
উদ্বোধকের বক্তব্যে মহিউদ্দিন ক্বাদেরী বলেন, আল্লামা ফারুকী (রহ.) মিডিয়ার মাধ্যমে দ্বীন ইসলাম ও সুন্নিয়তের শাশ্বত বাণীই আজীবন তুলে ধরেছেন। যারা হকের বাণী শুনতে চান না, যারা নবী-ওলীর দুশমন এবং ইসলামী ঐতিহ্য-নিদর্শন মাজার-খানকাহর অস্তিত্ব সহ্য করতে পারেন না, সেই ওহাবি-মওদুদী-লা মাযহাবী সালাফিরা মিলে পরিকল্পিতভাবে আল্লামা ফারুকীকে নির্মমভাবে খুন করেছে। সুন্নিয়তের আদর্শিক আন্দোলনকে দেশের সবখানে ছড়িয়ে দিয়ে তাঁর হত্যার বদলা নিতে হবে। যে সরকার জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে পারে না, তাদের সরকারে থাকার বৈধতাই নেই।
প্রধান বক্তারা বক্তেব্যে মাহবুবুর রহমান বাহার বলেন, আল্লামা ফারুকী খুনের মামলায় অভিযুক্ত ৬টিভি উপস্থাপককে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিলে আল্লামা ফারকীর খুনি কারা তার রহস্য বেরিয়ে আসবে। দেশে একের পর এক খুন-গুম হচ্ছে, অথচ সরকারের নীরবতায় দেশবাসী আজ ক্ষুব্ধ। দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও জননিরাপত্তা প্রদানে ব্যর্থ সরকার গণআস্থা হারিয়ে ফেলেছে। খুন-গুমের সাথে জড়িতদের শাস্তি না দিলে সরকারকে চরম মূল্য দিতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
মুহাম্মদ মহিউদ্দিন সায়েমের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ নুর রায়হান চৌধুরী, মুহাম্মদ আমির হোসেন সোহেল, মুহাম্মদ ইলিয়াছ রুবেল, মোঃ সাইফুল ইসলাম, মুহাম্মদ নাসিবুল আলম, মুহাম্মদ মিরাত, মুহাম্মদ মঈনুদ্দীন সাগর, মুহাম্মদ নাঈমুল হক, হাফেজ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, মুহাম্মদ আল মারুফ, হাফেজ মুহাম্মদ কফিল, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, মুহাম্মদ হারেজ, মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

আরো খবর

Leave a Reply