জানুয়ারি ২৩, ২০২২ ৩:২৯ পূর্বাহ্ণ

রাউজান সরকারি কলেজের দুই প্রভাষক ও এক কম্পিউটার অপারেটরকে অপসারণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন

 

এম,দিদারুল আলম

রাউজান কলেজের দুই প্রভাষক ও এক কর্মচারীকে অপসারণ দাবিতে কলেজ শিক্ষার্থীদের মিছিল ও সরকার বিরোধী কার্যকলাপ, অনিয়ম, জামায়াতের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়ন, কলেজ লাইব্রেরীতে জামাত পন্থী আবুল আলা মওদুদীর বই পুস্তক রাখার অভিযোগ তুলে চট্টগ্রামের রাউজান সরকারি কলেজের দুই প্রভাষক ও এক কম্পিউটার অপারেটরকে অপসারণের দাবিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও পৌরসভার মেয়র মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

ররিবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে কলেজের শিক্ষার্থীরা অপসারণের দাবীতে কলেজ চত্বর ও চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মহাসড়কে মিছিল বের করেন। এ সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত শিক্ষক কর্মচারিকে অপসারণের বিষয়ে তদন্তপূর্বক দ্রুত ব্যাবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট দাবী জানান।মিছিল শেষে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ, রাউজান পৌর মেয়র জমির উদ্দিন ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মুনিরুজ্জামানকে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান,রাউজান কলেজের অনার্স বিভাগের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক পটিয়ার বাসিন্দা মো. আতিক উল্লাহ চৌধুরী,কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটির) প্রভাষক চকরিয়ার বাসিন্দা এস.এম হাবিব উল্লাহ ও রাউজান কলেজের কম্পিউটার অপারেটর ও রাঙ্গুনিয়ার বাসিন্দা মো. এনামুল হক জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে। তাদের বিরুদ্ধে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কক্ষে বসে সরকার বিরোধী কার্যক্রম পরিচালনা,নারী শিক্ষার্থীদের কুপ্রস্তাব দেওয়া, কলেজ লাইব্রেরীতে মৌলবাদী পন্থী আবুল আলা মওদুদীর বই পুস্তক রাখাসহ নানা ধরণের অভিযোগ রয়েছে। তাই এসব অভিযোগের ভিত্তিতে কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীরা একাট্টা হয়ে আন্দোলনে নেমেছে।
তাদের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীদের অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।স্মারক লিপি গ্রহণ করে পৌরসভার মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, সরকারি কলেজে চাকুরি করে কেউ যদি সরকার বিরোধী কার্যকলাপে জড়িত থাকে এবং উগ্র জামাত মতবাদী মুলধারার কাউকে একবিন্দু ছাড় দেয়া যাবে না।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply