সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ ৩:৩৬ পূর্বাহ্ণ

নির্দোষ তারেক রহমান আওয়ামী অবৈধ সরকারের আক্রোশের শিকার-এডভোকেট এনামুল হক

দেশে এখন অন্ধকার-শ্বাসরোধী পরিবেশ বিরাজ করছে বলে উল্লেখ করে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল চট্টগ্রাম মহানগরের সহ-সাধারণ সম্পাদক, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি এডভোকেট এনামুল হক এনাম বলেছেন, নির্দোষ তারেক রহমান আওয়ামী অবৈধ সরকারের আক্রোশের শিকার।’ ১১/১ মইনুদ্দিন-ফখরুদ্দিনের অসাংবিধানিক সরকারের নির্দেশে ২০০৭ সালে ৭ মার্চ তারেক রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। আটকের পরে তার বিরুদ্ধে চালানো হয় অপপ্রচারের ধারাবর্ষণ। মইনুদ্দিন-ফখরুদ্দিনের কর্তৃত্ববাদী সরকার গণতন্ত্র ও ভিন্নমত প্রকাশের স্বাধীনতাকে বাধা দিয়ে তারেক রহমানকে নিয়ে নানা চক্রান্তের জাল ছড়ায়। মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে তাকে হেয় করার জন্য রাষ্ট্রশক্তিকে ব্যবহার করা হয়। অথচ দেশের কোথাও তার বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ বা মামলা ছিল না।’ সাবেক ছাত্রনেতা এনামুল হক বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের বর্ধিতাংশ হচ্ছে ১/১১-এর সরকার। আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন হওয়ার পর ১/১১ সরকারের দায়ের করা মামলায় সম্পূরক চার্জশিট দিয়ে তারেক রহমানের নাম দেওয়া হয়েছে। ফলে এই নাম দেওয়া সরকারের প্রতিহিংসা চরিতার্থেরই নামান্তর। তিনি আরও বলেন, ‘তারেক রহমানের ওপর নির্দয় নির্যাতন দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিহিংসার প্রকাশ। জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নেতৃত্বশূন্য ও সামগ্রিকভাবে বিরাজনীতিকরণের বন্টু-প্রিন্ট বাস্তবায়নের জন্যই সে সময় বিএনপি চেয়ারপার্সনকে মিথ্যা ও কাল্পনিক মামলায় গ্রেফতার এবং চক্রান্তমূলক বানোয়াট মামলায় আটক করে। তারেক রহমানকে শারীরিকভাবে ক্ষতবিক্ষত করা হয়েছে। যে অভিযোগগুলো তার বিরুদ্ধে করা হয়েছিল, সেগুলো পরবর্তীতে বানোয়াট ও বানানো গল্প হিসেবে প্রমাণ হতে থাকে। আর সেজন্য জনগণ বিশ্বাস করেন, তারেক রহমানের বিরুদ্ধে যে মামলা ও সাজা দেওয়া হয়েছে তা গভীর ষড়যন্ত্রমূলক।’ কারণ, দেশে এখন অন্ধকার-শ্বাসরোধী পরিবেশ। তার ওপর সরকারের ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রের ধারা এখনও বয়ে চলেছে। নানাভাবে তাকে বিপর্যস্ত-বিপন্ন করার জন্য সরকার কূটচাল চালিয়েই যাচ্ছে।

 

 

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১৪ তম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে ১০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে নগরীর বিভিন্ন বেসরকারি স্কুল ও কলেজ ছাত্র নেতৃবৃন্দের আয়োজনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এডভোকেট এনামুল হক এনাম এ মন্তব্য করেন। আইআইইউসি ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ইকবাল আহমদের সঞ্চালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন সাইফুল ইসলাম, ওমর ফারুক, সাইফুল্লাহ সাঈফ, এমরান হোসেন, আবদুল্লাহ আবদুল, অনিল ঘোষ, মোঃ নাছির, নবনীতা চৌধুরী, মোঃ ইমরান, রাজু আহমেদ, সালাউদ্দিন সায়েম, মোঃ সোহেল, আমির হোসেন, সঞ্জয় মিত্র, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, শহীদুল্লাহ শহীদ, মোঃ আরমান, সুব্রত চৌধুরী প্রমুখ।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply