ডিসেম্বর ৩, ২০২১ ৪:৫০ পূর্বাহ্ণ

পুলিৎজার পুরস্কার পেলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত সাংবাদিক

চীনের শিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর সম্প্রদায়ের উপর দেশটির সরকারের অবর্ণনীয় নির্যাতনের নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের জন্য আমেরিকায় সাংবাদিকদের সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘পুলিৎজার’ পেয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত সাংবাদিক মেঘা রাজাগোপালান। উল্লেখ্য, মেঘা বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বাজফিড নিউজে কর্মরত রয়েছেন। গত ১১ জুন, শুক্রবার, শিনজিয়াংকে ঘিরে মেঘার সিরিজ প্রতিবেদনটি ইন্টারন্যাশনাল রিপোর্টিং ক্যাটাগরিতে পুলিৎজার পুরস্কার জিতে নেয়। এই প্রতিবেদন তৈরিতে সহযোগিতা করায় তার সঙ্গে এই পুরস্কার পেয়েছেন আরও দুই কন্ট্রিবিউটর। চীন কর্তৃক উইঘুরসহ অন্যান্য সম্প্রদায়ের মুসলমানদের আটকে রাখতে গোপনে নির্মিত বন্দিশিবিরের উপর ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করেন মেঘা ও তার দুই সহযোগী। বিশ্বজুড়ে সাড়া ফেলা ওই প্রতিবেদনই তাদের এনে দিয়েছে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি। মেঘা এবং তাঁর সহযোগীরা এই প্রতিবেদন প্রকাশ করতে গিয়ে উইঘুর শিবিরে সাবেক বন্দী প্রায় দু ডজন ব্যাক্তির সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। পাশাপাশি, স্যাটেলাইট চিত্র এবং থ্রিডি আর্কিটেকচার যুক্ত ম্যাপিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে প্রায় ২৬০ টি বন্দী শিবির শণাক্ত করেন তাঁরা। মেঘার পুলিৎজার জেতা নিয়ে ‘বাজফিড’ বলেছে, “চীন সরকার মেঘার অনুসন্ধানী কাজ বন্ধ করে দিতে চেয়েছিল। তার ভিসা বাতিল এবং তাকে দেশ থেকে বের করে দিতে চেয়েছিল। রিপোর্টিং এর পুরো সময় জুড়ে তাকে হয়রানি করে চীন সরকার। পুরো শিনজিয়াং প্রদেশে পশ্চিমা দেশের নাগরিকসহ সাংবাদিকদের প্রবেশ বন্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছিলো চীন। তখন বন্দিদের নিয়ে প্রাথমিক তথ্য পাওয়াও কঠিন হয়ে পড়ে। তবে চীন সরকারের এসব বাঁধার সামনে দমে যাননি মেঘা। কর্মস্থল লন্ডন থেকে দুই কন্ট্রিবিউটরকে সঙ্গে নিয়ে শিনজিয়াংয়ে উইঘুর নির্যাতন নিয়ে প্রতিবেদনের কাজ অব্যাহত রাখেন তিনি।” পুলিৎজার পুরস্কার জয়ের পর লন্ডন থেকে মেঘা বাজফিড নিউজকে জানান, টেলিভিশনে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান দেখা হয়নি তার। কারণ পুরস্কার জিতবেন, তা তিনি আশাই করেননি। সম্পাদক স্কুফস তাকে ফোনে সুখবরটি দেন। মেঘা বলেন, শিনজিয়াংয়ের প্রতিবেদন তৈরিতে সহযোগিতা করা পুরো দলের প্রতি গভীরভাবে কৃতজ্ঞ তিনি। বাজফিড নিউজ-এর মেঘা রাজাগোপালন ছাড়াও পুলিৎজার পেয়েছেন ট্যাম্পা বে টাইমস-এর আরও এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত সাংবাদিক নীল বেদী। সাংবাদিকতা বিভাগে স্থানীয় স্তরে উল্লেখযোগ্য কাজের জন্য পুলিৎজার পেয়েছেন তিনি। ফ্লোরিডা কাউন্টির খবর প্রকাশ্যে এনে পুলিৎজার পেয়েছেন নীল। একটি সিরিজের মাধ্যমে ফ্লোরিডা কাউন্টির শেরিফ অফিসের একটি তদন্তমূলক প্রতিবেদন তুলে ধরেছিলেন তিনি। সেখানে কী ভাবে কম্পিউটারের মধ্যে পুলিশ সম্ভাব্য অপরাধীদের চিহ্নিত করে রাখে, তা একের পর এক এপিসোডে দেখিয়েছিলেন তিনি।

 

 

 

 

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply