জুন ১৩, ২০২১ ১:২৪ অপরাহ্ণ

রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত বাড়ি পাওয়া সুবিধাভোগীদের সাথে মতবিনিময়

মাজহারুল ইসলাম চপল

রাজশাহীতে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি পাওয়া সুবিধাভোগীদের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। আজ ২৯ মে  শনিবার দুপুর ১২ টায় রাজশাহীর গোদাগাড়ী গো-গ্রাম ইউনিয়নের রানিনগর গড়বাড়ি ও পরে পবা উপজেলার দামকুড়া ইউনিয়নের ভিমেরডাং এলাকার ঘর পাওয়া অসহায় ভুমিহীন মানুষের সাথে মতবিনিময় করেছেন রাজশাহী বিভাগের সম্মানিত বিভাগীয় কমিশনার ড. মোঃ হুমায়ূন কবির ও জেলা প্রশাসনের সম্মানিত জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রতিটি গৃহহীন মানুষকে ঘর তৈরি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ২০১৬ সালে জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে কোন জেলায় কতজন ভূমিহীন, গৃহহীন ও জমি আছে ঘর নেই—এমন মানুষের তালিকা তৈরি করে। সকল উপজেলা মিলে রাজশাহী থেকে মোট ৭৯২ টি বাড়ির তালিকা দিয়ে প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে ৭৯২টি বাড়ি করতে সক্ষম হয় জেলা প্রশাসন। এরই অংশ হিসবে রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ৪০৩ টি ও পবা উপজেলায় ৪৭ টি বাড়ি পেয়েছেন অসহায় ভুমিহীন মানুষ। তবে বাংলাদেশ এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস এসোসিয়েশন রাজশাহী এর পক্ষ থেকে আরও ৪ বাড়ি দেওয়া হয়েছে। মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,বিভাগীয় কমিশনার ড.মোঃ হুমায়ুন কবির। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সোনার বাংলাদেশে, তারই সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে গৃহহীনদের বাড়ি দেওয়ার ঘোষনা দেন। এই ঘোষনাকে অনেকে ব্যঙ্গোও করেছিলেন, কিন্তু এটা আর স্বপ্ন নয়, আজ বাস্তবায়ন। আপনারা যারা বাড়ি পেলেন তাদের উদ্যেশে বলবো, কেউ বাল্য বিবাহ দিবেন, বাল্যবিবাহ মানে অভিশপ্ত জিবন। আপনাদেন প্রতি শুভকামনা রইলো সবাই মিলে মিশে থাকবেন। তথ্যমতে, চলতি ২০২০ সালের ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা করেছিলেন, মুজিববর্ষে দেশে কোনও মানুষ গৃহহীন থাকবে না। সরকার সব ভূমিহীন, গৃহহীন মানুষকে ঘর তৈরি করে দেবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে এমন সিদ্ধান্তে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত সময়কে সরকার মুজিববর্ষ ঘোষণা করে। এই সময়ের মধ্যেই এসব ঘর নির্মাণ কাজ শেষ করার পরিকল্পনা ছিল। এই ঘোষনাকে বাস্তবায়ন করতে জেলা প্রশাসকের দিন রাত অক্লান্ত পরিশ্রমে মুজিব বর্ষের সেই কাঙ্খিত উপহার তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। এই মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকার অধিদপ্তর, রাজশাহীর উপ-পরিচালক শাহনাজ পারভীন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলাম, গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জানে আলম, পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল আক্তার, জেলা প্রশাসনের মিডিয়া মুখ্যপাত্র অভিজিৎ সরকার, এছাড়াও মজিবর রহমান, গোগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, আক্তারুজ্জামান বাবু, দেওপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় নেত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply