জানুয়ারি ২৫, ২০২২ ২:৫৯ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামের উন্নয়নে সেকান্দর হোসেন মিয়ার অবদান নতুন প্রজন্মের জন্য অনুসরণীয়

 

চট্টগ্রাম মহানগরীর সামগ্রীক উন্নয়নে সাবেক সংসদ সদস্য ও চট্টগ্রাম পৌর কর্পোরেশনের ১ম প্রশাসক মরহুম সেকান্দর হোসেন মিয়ার অবদান অনস্বীকার্য। সেকান্দর মিয়ার নেতৃত্বে নগরীর শিক্ষা সম্প্রসারণে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছিলো। তিনি ছিলেন ইউএসটিসি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ, ভাটিয়ারী গলফ এন্ড কান্ট্রি ক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর নেতৃত্বে সে সময় চট্টগ্রামের ব্যবসা বাণিজ্য সমৃদ্ধ হয়েছিলো চট্টগ্রাম চেম্বারের মাধ্যমে। তিনি ছিলেন একাধারে গরীব দরদী, মানবতাবাদী, পরোপকারী একজন পরিপূর্ণ নেতা। চট্টগ্রামের রাজনীতিতে বর্তমানে সেকান্দর হোসেন মিয়ার মত নেতার প্রয়োজন। বর্তমান প্রজন্মকে সেকান্দর হোসেন মিয়ার জীবনী থেকে শিক্ষা নিয়ে জনকল্যাণে কাজ করার উদাত্ত আহবান জানান বক্তারা। আজ ২১ ডিসেম্বর বিকাল ৪ টায় চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক পৌর প্রশাসক মরহুম সেকান্দর হোসেন মিয়ার ৩০ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নগর জাপা আয়োজিত স্মরণ সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন।

নগর জাপা সহ সভাপতি কামরুজ্জামান পল্টুর সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম রেজার পরিচালনায় মাদারবাড়ি মরহুমের বাসভবন চত্বরে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব রাখেন নগর স্বেচ্ছাসেবক পার্টি কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি জহুরুল ইসলাম রেজা, কৃষক পার্টির কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি এনামুল হক বেলাল, নগর জাপা নেতা সামশুল আলম বি.কম, ইপিজেড থানা জাপা সভাপতি বেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ, বাকলিয়া থানা জাপা সদস্য সবিচ নুরুল আজিজ সওদাগর, কোতোয়ালী থানা সাধারণ সম্পাদক সেলিম উদ্দিন সেলিম, ডবলমুরিং থানা সহ সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারেক, নগর মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পার্টির সদস্য সচিব জামাল উদ্দিন কান্টু, বন্দর থানা জাপা নেতা সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply