বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পতেঙ্গার কাঠগড় এলাকায় ফ্ল্যাট বাসায় চলছে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে দেহ ব্যবসা

 শাহীন আহমেদ

পতেঙ্গা থানার কাঠগড় এলাকায় চড়িহালদা কামাল হোটেলের সাথে গলির শেষ মাথায় চলছে ফ্ল্যাটে রমরমা দেহ ব্যবসা। স্বামী-স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে চালাচ্ছে এই কারবার।এলাকাবাসীদের ছাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে, যে কোন সময় মিছিল ও সমাবেশ করবে এর প্রতিবাদে । দেহ ব্যবসা নিরাপদে করতে ফ্ল্যাট মালিক ও দালালেরা স্থানীয় কিছু মাস্তান ও গুন্ডাদের আশ্রয় নেয় । সংশ্লিষ্ট পুলিশের সাথেও তাদের মাসোহারার চুক্তি রয়েছে।

জানা গেছে,  প্রতিদিনের আয়ের একটি অংশ পায় পুলিশ  ও দালালেরা । সাপ্তাহিক পূর্ব বাংলা ও www.banglapostbd.com এর অনুসন্ধানে  বের হয়ে আসে কিছু অসৎ চাকরীচ্যুত ভুয়া সাংবাদিকও এসব কাজে জড়িয়ে পড়েছে।ওই ভুয়া সাংবাদিক পরিচয় দাতা আমাদের প্রতিনিধিকে হুংকার দিয়ে বলেন ‘এটা পুলিশের সাথে মৌখিক চুক্তি আছে আপনি এখান থেকে চলে যান আপনি যা লেখার তাই লিখেন।’ তবে পুলিশ চাইলে একদিনের মধ্যে এসব অবৈধ ব্যবসা বন্ধ করতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সচেতন ব্যক্তিরা।

ওই ফ্ল্যাটের গেইটে টু – লেট লাগানো আছে। সেখানে দুটো নাম্বার দেয়া আছে। নাম্বার দু”টো হলো ০১৬৮৮ ৮৩ ৬৩ ৫২ ও ০১৮১৫ ৬৭৭৪১০। সেখান থেকে একটিতে ফোন করলে ফোন রিসিভ করে তখন সে বলে আমি এই বাড়ির মাালিক তখন তাকে এ ব্যাপারে প্রশ্ন করলে ফোন ধরিয়ে দেয় অসামজিক ব্যবসায় জড়িত জনৈক সাথী নামক একজনের সাথে। তখন সে অসভ্য ভাষায় গালি গালাজ করে সে আরো বলে এর চেয়ে হাই কোয়ালিটির লোক তার আছে।পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেব, এখানে এসো। ওই গালিগুলো দুটোর ফোনালাপ শুনলে স্পষ্ট বুঝা যাবে।

এ দিকে এলাকার কিছু সচেতন মানুষ বলছে তাদের জন্য এই গলি দিয়ে হাঁঁটলেও লজ্জার শিকার হন তারা। অবাধে দেহ ব্যবসা করার কারণে সমাজে এ নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। দেহ ব্যবসা আগ্রাসন বন্ধে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন সচেতন মহল । এখানকার স্কুল কলেজে পড়ুয়াদের নিয়ে অভিভাবকগণ বিব্রত অবস্হায় রয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply