বাংলাদেশ, শনিবার, ১৬ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঠান্ডা মিয়ার গরম কথা (২২৯) সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর সমীপে

মাননীয়,

 সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর সমীপে,

শ্রদ্ধেয় তানভীর ভাইজানরে,

গরম গরম কথার শুরুতে আমার লাখ কোটি সালাম জানিবেন।আশা করি, আল্লাহ মালিকের অপার মহিমায় ভালো থাকিয়া বৈশ্বিক করোনাকালে দেশের বন্দর নগরী সিএমপি কমিশনারের দায়িত্ব পালন করিয়া নানান কল্যাণকর কর্মসুচী ও দেশের ভবিষ্যত হরেক রকম চিন্তা ভাবনা করিয়া দিনাতিপাত করিতেছেন। আমিও গ্রাম বাংলার এক মফস্বল শহরে থাকিয়া দেশের ভবিষ্যতের কথা ভাবিয়া ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্ছার মতো খাইয়া না খাইয়া বাঁচিয়া আছি। গেলবারে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমীপে ঠাণ্ডা মিয়ার গরম কথা লিখিবার সময় এইবার আপনার সমীপে লিখিব বলিয়াছিলাম, এইজন্য লিখিতেছি বলিয়া রাগ করিবেন না বরং শত ব্যস্ততার মধ্যেও গরম কথাটুকু পড়িয়া দেখিবেন ও যাহা প্রয়োজন তাহা করিবেন আর ভুল হইলে নিজ গুনে মাফও করিয়া দিবেন।

ভাইজানরে,

ইতিপূর্বে বহুবার পুলিশ মন্ত্রী অর্থাৎ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি ও সিএমপি কমিশনার সমীপে লিখিয়াছিলাম।গরম কথা প্রকাশিত হইবার পর অনেক কাজ হইয়াছে।এইজন্য চট্টগ্রাম নগরবাসীরা বার বার পুলিশ কমিশনার সমীপে লিখিবার জন্য অনুরোধ করিয়া থাকেন।আমিও বহুবার অনুরোধে টেঁকিও গিলিয়া থাকি।এইবারও তাই হইয়াছে।

ভাইজানরে,

‘জাতির পিতার সম্মান, রাখবো আমরা অম্লান’ স্লোগান দিয়া বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস এসোসিয়েশন চট্টগ্রাম জেলা কমিটির ব্যানারে মানব বন্ধন করিয়াছেন চট্টগ্রামের বিচারকরা। এই মানববন্ধনে একশ’ বিচারক অংশ নিয়াছেন।এই প্রথম দেখিলাম বিচারকদের মানববন্ধন।

নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইন সংলগ্ন পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির সামনের সড়কে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে এ মানববন্ধনের আয়োজন করেন তাহারা।মানবন্ধনে চট্টগ্রামের জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইল হোসেন বলিলেন, ‘যে বিচারকেরা শুধু বিচার করে না, তাহারা প্রতিবাদ মিছিলেও অংশ নিতে জানে।’ চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন ও আপনিও উপস্হিত ছিলেন এই মানব বন্ধনে ।বিষয়টি সুশীল সমাজে বেশ আলোচিত হইয়াছে বলিয়া শুনিয়াছি।

ভাইজানরে, 

নো মাক্স নো সার্ভিস, সিভিলে বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করিয়া কিংবা সারপ্রাইজ ভিজিটের পর বিহিত ব্যবস্হা গ্রহণ করিয়া অপরাধ দমনে আপনার ভুমিকা সচেতনমহলে দৃষ্টি কাড়িয়াছে।কিন্তু চট্টগ্রামে দোকান, গণপরিবহণ, রেস্টুরেণ্ট ও আবাসিক হোটেলে স্বাস্হ্যবিধি কোথাও মানা হচ্ছে না।বিষয়টি আপনার এলাকা হিসেবে আপনাকে ভাবিতে হইবে বলিয়া সচেতন লোকেরা বলিতেছে।পতেঙ্গা ও ইপিজেড এলাকায় অপরাধ বাড়িতেছে বলিয়া ওই এলাকার লোকেরা আপনাকে জানানোর জন্য অনুরোধ করিয়াছে। চকবাজার এলাকাটি চট্টগ্রামের মেধাবী ছাত্র ছাত্রীদের আনাগুনার এলাকা।আর ঢাকায় ফার্মগেট এলাকাটিও তেমন।এই কথা বলিবার অর্থ হইল চকবাজার এলাকার বেশ কিছু পড়ুয়াদের অভিভাবক কান্নাকাটি করিয়া আপনাকে জানানোর জন্য  বার বার বলিয়াছে।চকবাজারের ইমামগঞ্জ আবাসিকে, সাইবার ক্যাফে, আলো – আধারী রেস্টুরেন্টে ছাত্রছাত্রীদের নৈতিকতা নষ্ট হচ্ছে বলিয়া অভিযোগ উঠিতেছে।বিষয়টির সাথে ভবিষ্যত নৈতিকতা উৎকর্ষতা সাধন নির্ভর করিতেছে।দেশের ভবিষ্যত প্রযন্ম লইয়া আমাদের ভাবিতে হইবে বেশী।

আজ আর না।আপনার মঙ্গল ও সুস্বাস্হ্য কামনায় । ইতি আপনার গ্রাম বাংলার অখ্যাত

                                                                                              ঠাণ্ডা মিয়া

গ্রন্হনা ম. আ. হ

আগামী সংখ্যায় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা  সমীপে ঠাণ্ডা মিয়ার গরম কথা ( ২৩০) সমীপে প্রকাশিত হইবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply