বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভিআইপিদের নাম ভাঙিয়ে হবিগঞ্জে প্রতারণা: সাহেদ খ্যাত প্রতারক আটক

 
একে কাওসার, জেলা প্রতিনিধি
 ভিআইপিদের নাম ভাঙিয়ে চাকরি ও কাজ পাইয়ে দেয়ার নামে প্রতারণার দায়ে হবিগঞ্জের সাহেদ খ্যাত এক প্রতারককে আটক করেছে পুলিশ।
এর দুইদিন আগে অনুমতি ছাড়া হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল হাসানের বাসভবনে তিন সহযোগী নিয়ে প্রবেশ করার দায়ে ৪ আগষ্ট সকালে জেলা প্রশাসক অফিসে নেয়া হয়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ভুক্তভোগীরা তাকে গ্রেফতারের দাবি জানান।
পরে হবিগঞ্জ পৌর এলাকার সায়েস্তানগরের বাসিন্দা এক ভুক্তভোগী মোঃ টিপু তার বিরুদ্ধে সদর থানায় অভিযোগ দিলে তাকে আটক করা হয়। কিন্তু তার অপর তিন সহযোগীর বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ না করায় দুই জনপ্রতিনিধির জিম্মায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।
পুলিশ ও ভুক্তভোগী জানান, ভিআইপিদের সাথে ছবি তুলে আর এ ছবি ফেসবুকে দিয়ে প্রতারণা করতো শাহ আফজল হোসাইন নামের ওই প্রতারক। এমন কোন মন্ত্রী, এমপি ও নেতা নেই যার সাথে তার ছবি নেই। আর সে এসব ছবি ব্যবহার করে প্রতারণা করত। এ যেন আর এক সাহেদ।
জানা যায়, হবিগঞ্জ সদর উপজেলার আউশপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল হেকিম ওরফে নেওয়া মেম্বারের পুত্র শাহ আফজল হোসাইন (২৮) বর্তমানে সিলেট পুলিশ লাইন এলাকার বাসিন্দা।
সে মন্ত্রী এমপিদের সাথে ছবি তুলে ফেসবুকে দিয়ে প্রচারণা করে চাকরি ও কাজ পাইয়ে দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়।সিলেট বিভাগে তার একাধিক ব্যাংক একাউন্ট রয়েছে। মানুষের সাথে প্রতারণা করে সে একাধিক জমি কিনেছে। সে নিজেকে আ’লীগের কেন্দ্রীয় নেতা দাবি করে।
হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের এক বিচারপতি কে নিজের চাচা দাবি করে মানুষের সাথে প্রতারণা করে। এ নিয়ে একাধিকার শালিস হয় গ্রামে।
তার এই সব অপকর্মের বিরুদ্ধে হবিগঞ্জ শহরের শায়েস্তানগরের আইয়ুব আলীর পুত্র টিপু নামের এক ব্যক্তি প্রধানমন্ত্রী বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগে তিনি বলেন, তার নিকট থেকে ৬ লাখ টাকা নিয়েছে আফজাল প্রতারণা করে।
এ বিষয়ে তার আত্মীয়সহ মা, চাচা ও মেম্বারদের জানালে তারা টাকা ফেরত দেয়ার তারিখ করলেও আফজাল মানেনি। বিভিন্নভাবে সময় অতিবাহিত করছে।
এ বিষয়ে ওসি মাসুক আলী জানান, এজহার পেয়েছি। শাহ্ আফজলকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। আমার নিকট তার বিরুদ্ধে আরেকটি প্রতারনা মামলা এসেছে। ওই মামলার বাদী রিচি গ্রামের ফারুক। তিনি হবিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস সড়ক এলাকায় থাই ও গ্লাসের দোকানের মালিক। তার কাছ থেকে একই ভাবে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেয়। প্রতারক আফজলের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগগুলো তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply