বাংলাদেশ, সোমবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে  ঈদ বোনাস ও বকেয়া বেতনের দাবীতে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল

আসন্ন ঈদ-উল-আযহা’র এক সপ্তাহ পূর্বে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও বোনাস (উৎসব ভাতা) পরিশোধ এবং করোনার কারণে কর্মচ্যুত ও কর্মহীন শ্রমিক-কর্মচারীদের শ্রমিক-শ্রমজীবিদের অর্থ সহায়তা প্রদানের দাবীতে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ এর ডাকে দেশব্যাপী সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলের অংশ হিসাবে আজ ২০ জুলাই ২০২০ বিকাল ৪ ঘটিকায় দোস্ত বিল্ডিং চত্বরে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে এক ¤্রমিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন- বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি খোরশেদ আলম। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, চট্টগ্রাম জেলা সাধারণ সম্পাদক মোঃ মামুন, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট (এনডিএফ) চট্টগ্রাম জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, বাংলাদেশ ওএসকে গার্মেন্টস এন্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটির সভাপতি মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, সামুদ্রিক মৎস্য শিকারী জাহাজ শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি: নং- ১১৭৯ এর সাধারণ সম্পাদক নুর নবী। সমাবেশ পরিচালনা করেন- বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, চট্টগ্রাম জেলার প্রচার সম্পাদক কবির হোসেন, সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, চট্টগ্রাম জেলা সদস্য মোঃ সোহেল প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন- করোনা কালীন সময়ে গত ঈদ-উল-ফিতর এর সময় বেতন-বোনাস নিয়ে শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে চরম অসন্তোস ছিল এবং অত্যন্ত কষ্টের মাঝে ঈদ-উল-ফিতর অতিবাহিত করেন। এবারের ঈদ-উল-আযহা’র সময় মালিকরা বকেয়া বেতন ও বোনাস নিয়ে নানা টালবাহানা শুরু করেছে। তাই আমরা ঈদ-উল-আযহা’র এক সপ্তাহ আগেই বকেয়া বেতন-বোনাস পরিশোধ এর দাবী জানাচ্ছি। করোনা কালীন সময়ে লক্ষ কর্মচ্যুত-কর্মহীন শ্রমিক-কর্মচারীরা আর্থিক সহায়তা এখনও পায় নাই। অভিলম্বে কর্মচ্যুত-কর্মহীন শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তা ও পূর্ণাঙ্গ রেশন প্রদান করতে হবে। করোনা কালীন সময়ে করোনায় আক্রান্ত শ্রমিকদের বিনামূল্যে চিকিৎসা ও মৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণের দাবী জানানো হয়। সাথে সাথে নৌযান, মৎস্য, হোটেল, গার্মেন্টস, ‘স’মিল, মিষ্টি বেকারী, চা শ্রমিকসহ সকল সেক্টরে শ্রমিক কর্মচারীদেরকে বকেয়া বেতন-বোনাস আদায়ের দাবীতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানানো হয়। সমাবেশ শেষে দোস্ত বিল্ডিং চত্বর থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল পুরাতন ষ্টেশন ঘুরে পুনরায় দোস্ত বিল্ডিং এসে শেষ হয়।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply