আগস্ট ৯, ২০২২ ১২:৫৭ অপরাহ্ণ

কোভিট মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থাগুলির ভুমিকা প্রশংসনীয়

চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম এমপি বলেছেন বৈশ্বিক মহামারী করোনা মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সমুহের মানবিক কার্যক্রম প্রশংসনীয়। বেসরকারী সংস্থাগুলির মধ্যে আইএসডিই বাংলাদেশ কক্সবাজার অঞ্চলে দীর্ঘদিন যাবৎ অনেকগুলি মানবিক উন্নয়ন কার্যক্রমে জড়িত ও প্রশংসনীয় ভাবে মানবতার ডাকে সাড়া দিয়ে যাচ্ছে। মানবিক উন্নয়নে নিয়োজিত বেসরকারী উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানগুলির কর্মকান্ডে সরকার, স্থানীয় জেলা ও উপজেলা প্রশাসন সকল ধরনের সহযোগিতা ও সমর্থন দিয়ে যাবে। ১৩ জুলাই চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিয়নে মহামারী (কোভিট-১৯) এ ক্ষতিগ্রস্থ দরিদ্র ও কর্মহীন মানুষের মাঝে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আইএসডিই বাংলাদেশ এর উদ্যোগে দাতা সংস্থা WJR টক সহায়তায় খাদ্য ও জীবানু নাশক বিতরন কালে উপরোক্ত মন্তব্য করেন।

খাদ্য ও জীবানু নাশক বিতরণ কালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চিরিঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দীন, আইএসডিই বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক এস এম নাজের হোসাইন, চিরিঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জামাল উদ্দীন চৌধুরী, আইএসডিই বাংলাদেশের কর্মসুচি সমন্বয়কারী মোঃ জাহ্ঙ্গাীর আলম, আইএসডিই কর্মকর্তা মনসুর উদ্দীন, উপজেলা ব্যবস্থাপক মোঃ জালাল উদ্দীন, কর্মসুচি কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম, ইউপি সচিব, সদস্য/সদস্যা, গণমান্য ব্যক্তিবর্গ।

অন্যান্য বক্তারা সামাজিক দুরত্ব মেনে চলা, ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক ব্যবহার, ঘরে ফিরলে সামান দিয়ে হাত ধোয়ার মতো স্বাস্থ্য বিধি কঠোর ভাবে মেনে চলার উপর গুরুত্ব প্রদানের আহবান জানান। এ্কই সাথে দেশীয় স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নয়নে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। সরকারী হাসপাতালগুলির আধুনিকায়ন ও সেবা সম্প্রসারণের আহবান জানান।

করোনা মহামারী (কোভিট-১৯) এর কারনে ক্ষতিগ্রস্থ দরিদ্র ও কর্মহীন মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আইএসডিই বাংলাদেশ এর উদ্যোগে দাতা সংস্থা ডঔজ টক সহায়তায় চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিযনে ২০০ পরিবারের মাঝে জরুরি খাদ্য ও জীবানু নাশক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। জরুরি ত্রাণ সহায়তার মধ্যে ছিলো পরিবার প্রতি চাল ২০ কেজি, ছোলা ৩ কেজি, মসুর ডাল ২ কেজি, বুটের ডাল ২ কেজি, আলু ৫ কেজি, সয়াবিন তৈল ২ কেজি, পেয়াঁজ ২ কেজি, সাবান ২টি, মাক্স ২টি, মরিচ গুড়া ৫০০ গ্রাম, হলুদ গুড়া ৫০০ গ্রাম।

উল্লেখ্য আইএসডিই বাংলাদেশের উদ্যোগে করোনা মহারীতে কর্মহীন ও ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারী উদ্যোগের পাশাপাশি ককসবাজার জেলার চকরিয়া ও উখিয়া উপজেলার ২ হাজার পরিবারের মাঝে জরুরী খাদ্য ও জীবানু নাশক উপকরণ বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়াও করোনা মহামারী সংক্রান্ত প্রচার পত্র, ফেস্টুন, হাত পরিস্কারে পানি সুবিধাসহ বেসিন স্থাপন করা হচ্ছে।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply