বাংলাদেশ, শনিবার, ৮ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আনোয়ারায় করোনায় আক্রান্তের গুজব ছড়িয়ে চাঁদা আদায়ের ফাঁদ তৈরী করছে মাদকসেবীরা

আনোয়ারা প্রতিনিধি

আনোয়ারায় করোনায় আক্রান্তের গুজব ছড়িয়ে চাঁদা আদায় করার চেষ্টা করছে বলে খবর পাওয়া গেছে। গতকাল সোমবার উপজেলা ১নং বৈরাগ ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মুহাম্মদপূর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ কিছু চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও মাদকসেবী যুবক পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটাচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। স্থানীয় ও ভুক্তভোগীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বৈরাগ মুহাম্মদপুরে মাদক সেবীদের উৎপাত বেড়ে যায়, এসব মাদক সেবীরা মাদকের টাকা জোগাড় করতে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ে। সম্প্রতি তারা করোনা ভাইরাসকে টার্গেট করে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে এলাকার লোকজন থেকে চাঁদা আদায়ের চেষ্টা চালাচ্ছে। গতকাল জাতীয় দৈনিক একুশে পত্রিকার সহ-সম্পাদক ও জিনিয়াস বাংলা টিভির সম্পাদক সাংবাদিক এম এ সবুরের পরিবারেও তারা হানা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। বিষয়টি জানতে চাইলে সাংবাদিক সবুর জানান, তিনি দীর্ঘ দিন ধরে শহরে বসবাস করছেন ।

সম্প্রতি তিনি সর্দি জ্বরে আক্রান্ত হলে করোনা নমুনা টেষ্ট করে, এতে তার করোনা রিপোর্টও নেগেটিভ আসে। কিছু দিন আগে এলাকায় কিছু লোকের সাথে মাদক ব্যবসা ও জুয়া খেলাকে নিয়ে প্রতিবাদ করায় ওই যুবকরা এম এ সবুরের করোনা হয়েছে বলে বাড়ীতে গিয়ে তার বৃদ্ধা মাকে ও এলাকায় এলাকায় গুজব ছড়িয়ে দেয় এবং এম এ সবুরকে এলাকায় ডুকতে দেবে না বলে গুজব ছড়াচ্ছে। এ কথা শুনে তার বৃদ্ধা মা তাকে ফোন করে বিষয়টি জানতে চেয়ে কান্নাকাটি করতে থাকে। তিনি আরো বলেন, বিষয়টি কে বা কারা গুজব ছড়িয়েছে তাদেরকে খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার জন্য আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবরে লিখিতভাবে অভিযোগ করব। এ ব্যাপারে সাংবাদিক সবুরের বৃদ্ধা মা বলেন,আমি বৃদ্ধা মানুষ, আমার ছেলের করোনা হয়েছে শুনে পৃথিবীর কোন কিছু এখন আর ভালো লাগছে না। তিনি আরো বলেন, আমার ছেলে আমার থেকে গোপন করছে কিনা বুঝতে পারছি না। এলাকায় মানুষের মুখে মুখে শুনা যাচ্ছে আমাদেরকে নাকী সমাজ থেকে বের করে দেবে। না হয় টাকা দিতে হবে। আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দুলাল মাহমুদ জানান, করোনার সুযোগে কিছু দূঃষ্কুতকারী গুজব জড়িয়ে ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে, শীঘ্রই তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply