বাংলাদেশ, বুধবার, ২৭শে মে, ২০২০ ইং, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আনোয়ারায় করোনার ঝুঁকি নিয়ে চালু হচ্ছে কেইপিজেড

আনোয়ারা প্রতিনিধি

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) বাংলাদেশে ভয়াবহ রুপ নিচ্ছে।এই পর্যন্ত দেশে ৭০জনের দেহে ভাইরাসটি ধরা পড়েছে।৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস এবার চট্টগ্রামেও হানা দিয়েছে।চট্টগ্রাম শহরের দামপাড়া এলাকায় এক বৃদ্ধা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

বাণিজ্য নগরী চট্টগ্রাম শহরে বিভিন্ন বিদেশী লোকের সমাগম থাকায় করোনা ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।বিশেষ করে চট্টগ্রামের গার্মেন্টস শিল্প রয়েছে বেশি ঝুঁকিতে। করোনার ভয়াবহ ঝুঁকি নিয়ে আগামীকাল রবিবার ৫ এপ্রিল চালু হচ্ছে কর্ণফুলী স্যুজ ইন্ডাঃ লিঃ। বিজিএমএ ও সরকারি নির্দেশনা মেনে গত ২৯ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখলেও এবার চালু হচ্ছে এটি।

জানা যায়,এই প্রতিষ্ঠানে ২৫ হাজারেরও অধিক শ্রমিক কর্মরত রয়েছে।এখানে রয়েছে ২০ টির অধিক ইউনিট।প্রতি ইউনিটে ১হাজারের অধিক শ্রমিক কাছাকাছি অবস্হান করে দূরত্বহীন কাজ করে।এ ছাড়া একসাথে হাজার হাজার শ্রমিক দুপুরের খাবার খায়।একসাথে অফিসে প্রবেশ করে ও বের হয়।এখানে ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির জন্য নেই কোনো কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্হা।নেই কোনো ভাইরাস পরীক্ষার ল্যাব। সরকারি ছুটি ৪ এপ্রিল পর্যন্ত থাকলেও বর্ধিত করে ১১এপ্রিল পর্যন্ত করা হয়েছে।গণপরিবহন, সিএনজি ও মোটর রিক্সাসহ যাত্রীবাহী পরিবহণ চলাচল বন্ধ। এই পরিস্হিতিতে হাজার হাজার শ্রমিককে কাজে যোগ দিতে হবে কাল।আনোয়ারা,বাঁশখালি,পটিয়া,চন্দনাইশ,সাতকানিয়াসহ দূর-দূরান্তের মানুষ কাজ করে এইসব কারখানায়। এমন পরিস্হিতিতে যাতায়ত ভোগান্তি পোহাতে হবে শ্রমিকদের। আব্দুল মজিদ নামের একজন গার্মেন্টস শ্রমিক জানান, গত ছুটির আগে আমরা আসার সময় গাড়ি না পেয়ে বটতলী থেকে হেঁটে হেঁটে অফিসে আসতে হয়েছে। গাড়ি চলাচল না করলেও অফিসে বেতন কাটার ভয়ে আমাদের কাজে যোগ দিতে হয়।জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমরা অফিসে কাজ করছি। আমাদের সাথে বিভিন্ন এলাকার মানুষ কাজ করে।একজনের ভাইরাস হলে তা পুরা গার্মেন্টসসহ আশে-পাশে এটি ছড়িয়ে পড়বে। কর্ণফুলী স্যুজ ইন্ডাঃলিঃ সূত্রে জানা যায়, বিজিএমএ নির্দেশনা মেনে,হ্যান্ড ওয়াস পাইপ,ফিঙ্গারের হ্যান্ড স্যানিটাজেশন,মাক্স বিতরণ করে শ্রমিকদের নিরাপত্তা দিয়ে কাজ করার প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply