বাংলাদেশ, রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

লামায় দরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ শুরু

 

লামা সংবাদদাতা : ২৮ মার্চ
লামায় সরকারি ত্রাণসহায়তা বাড়িতে পৌঁছে দিচ্ছেন জনপ্রতিনিধিরা।
এপর্যন্ত বরাদ্দ এসছে ১৩ মে:টন চাউল, নগদ ৯০ হাজার টাকা। সহায়তা পাবেন
প্রায় ৯ হাজার পরিবার। শনিবার দুপুর থেকে ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার বিভিন্ন
ওয়ার্ডে দরিদ্র জনগোষ্ঠির বাড়ি গিয়ে ত্রাণ সহায়তা শুরু হয়েছে। এসময়
উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল, পৌর মেয়র মো: জহিরুল ইসলাম, উপজেলা
নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি, লামা সদর ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু
কুমার সেন, প্রেসক্লাব সেক্রেটারী মো.কামরুজ্জামানসহ অন্যান্য
সংবাদকর্মি, রেডক্রিসেন্ট স্বেচ্ছাসেবীরা উপস্থিত ছিলেন।
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশের অন্যান্য এলাকার ন্যায় পার্বত্য লামা উপজেলাও ২৫
মার্চ থেকে লকডাউন করা হয়। এর ফলে খেটে খাওয়া মানুষগুলোর খাদ্যাভাব দূরীকরণের
লক্ষ্যে ত্রাণ কার্যক্রম শুরু করেন। সূত্রে জানাযায়, এ পর্যন্ত জেলা প্রশাসন থেকে লামা
উপজেলার জন্য আপদকালীন বরাদ্দ হিসেবে ১০ মে:টন চাউল, নগদ ৭০ হাজার টাকা
এবং পৌরসভার জন্য ৩ মে:টন চাউল, নগদ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ এসেছে। প্রতিটি
পরিবারে পাচ্ছেন ১০ কেজি চাউল, ১টি সাবান, আধা কেজি ডাল ও এক লিটার
ভোজ্য তৈল।
উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল জানান, উপজেলার সবকটি ইউনিয়নে
প্রতিটি ওয়ার্ডে একশ্ধসঢ়; জন করে এবং পৌর সভায় ২৫০ জন করে মোট আট
হাজার পাঁচ শত পঁঞ্চাশটি দরিদ্র পরিবার এর তালিকা তৈরি হচ্ছে। এসব পরিবার
সবাই সরকার প্রদত্ত ত্রাণ সহায়তা পাবেন।
এদিকে ব্যাক্তি উদ্যাগেও প্রতিবেশিদের প্রতি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন
অনেকে। এর মধ্যে লামা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ
কান্তি দাস তার প্রতিবেশিদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। সমাজের ক্রান্তিলগ্নে
প্রদীপ কান্তি দাসেরে এই মহতি প্রয়াস সত্যেই মানবিক, এমন মন্তব্য লামা
বাজারপাড়ার বাসিন্দাদের।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply