বাংলাদেশ, শনিবার, ৮ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাবেক সাংসদ মঈনুদ্দিন খান বাদলের কবর জয়ারত করে মেয়র প্রার্থী এম. রেজাউল করিম চৌধুরী বললেন শেখ হাসিনার আস্থার মর্যাদা রাখতে সকলের দোয়া চাই

শুক্রবার দুপুরে বোয়ালখালী উপজেলার পবিত্র বুড়া মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আসন্ন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা এম. রেজাউল করিম চৌধুরী। জুমার নামাজ আদায় শেষে সমবেত জনসাধারনের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি বলেন, আমরা সবাই মহান সৃষ্টিকর্তার সকল সৃষ্টির সেরা জীব। তিনি তাঁর সুনিপুন হাতে আমাদের এই সুন্দর ধরণীকে সৃষ্টি করেছেন। আমাদের বেঁচে থাকার সমস্ত রশদও তিনি প্রকৃতিকে দিয়ে রেখেছেন। পারস্পরিক শান্তি-সৌহার্দ্য-স¤প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ থেকে সৃষ্টিকর্তার প্রদত্ত সম্পদরাজির সুষ্ট ও সুন্দর রূপে পরিকল্পিত উপায়ে ব্যাবহার করতে হবে। এতেই আমাদের মানব জীবনের সুখ ও সার্থকতা আসতে পারে। এজন্য কাউকে না কাউকে দায়িত্ব নিয়ে প্রকৃতির সম্পদকে সুষ্ঠ ও সুষম ব্যাবহার নিশ্চিত করতে দায়িত্ব নিয়ে বুদ্ধিদীপ্ত পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করতে হবে। পারিবারিক ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় ছাত্র জীবন থেকেই সমাজের সুষম উন্নয়ন ও জনকল্যানের মানসিকতা নিয়ে রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম আমি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য তনয়া আওয়ামীলীগ সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের উন্নয়নের জন্য এবং মানুষের কল্যানে কাজ করার জন্য আমাকে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে মনোনয়ন দিয়েছেন। আপনাদের দোয়া নিয়েই আমি এ পদে প্রতিদ্ধন্তিতা করছি। বোয়াল উপজেলার অনেক মানুষ মহানগরে বসবাস করেন। তারা মহানগরের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ভোটার। আপনাদের মাধ্যমে আমি তাদেরও দোয়া ও মূল্যবান ভোট প্রার্থনা করি। মেয়র নির্বাচিত হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার যে অঙ্গীকার চট্টগ্রামকে আন্তর্জাতিকভাবে আকর্ষনীয় বহুমাত্রিক গুরুত্বসম্পন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলে দেশকে একটি উন্নত বিশ্বের অন্যতম রাষ্ট্রে পরিনত করা, তাতে আপনাদের পক্ষ থেকে আমি সর্বোচ্চ অবদান রেখে চট্টগ্রামের মানুষের মুখ উজ্জ্বল করতে পারি এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থার মর্যাদা রক্ষা করতে পারি। এ জন্য আমি সকলের দোয়া চাই। জুমার আদায়ের পূর্বে তিনি চট্টগ্রাম ৮ আসনের সাবেক সাংসদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মাঈনুদ্দিন খান বাদলের কবর জেয়ারত করেন তিনি। এ সময় তিনি বলেন, মাঈনুদ্দিন খান বাদল ভাই ছিলেন একজন জাতীয় পর্যায়ের নেতা। তাঁকে হারিয়ে আমরা একজন সত্যিকারের দেশপ্রেমিক জননেতাকে হারিয়েছি। কেবল বোয়ালখালী কিংবা চট্টগ্রামের মানুষই নয়, গোটা বাংলাদেশের মানুষ এ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনৈতিক নেতাকে আজীবন গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে।
এ সময় তাঁর সাথে অন্যান্যদের মধ্যে উত্তর, দক্ষিণ ও মহানগর নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply