বাংলাদেশ, বুধবার, ৮ই জুলাই, ২০২০ ইং, ২৪শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিজয় ৭১’র উদ্যোগে বিজয় গোল্ডকাপ অলিম্পিক ফুটবল টুর্ণামেন্ট

মতবিনিময় সভা ও সংবাদ সম্মেলন
মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সংগঠন ‘বিজয়’৭১ এর উদ্যোগে ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার নগরীর সুপ্রভাত স্টুডিও হলে বিজয় গোল্ডকাপ অলিম্পিক ফুটবল টুর্ণামেন্ট’১৯ আয়োজনে সফলতার লক্ষ্যে আয়োজক কমিটির এক মতবিনিময় সভা ও সংবাদ সম্মেলন টুর্ণামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আলী আহমেদ শাহীন’র সভাপতিত্বে ও লায়ন মো: আবু ছালেহ্’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়।
মতবিনিময় সভায় প্রধান পৃষ্ঠপোষক খন্দকার লতিফুর রহমান আজিম, মো: সাহাবুদ্দিন, প্রধান সমন্বয়ক লায়ন ডা: আর.কে রুবেল, সচিব লায়ন ওসমান সরওয়ার, যুগ্ম সচিব মৃণাল কান্তি দাশ, জাবেদ হোসেন, আবদুল মাবুদ দোভাষ, অমর কান্তি দত্ত ও বেলাল আহমেদ উদয়ন আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। মতবিনিময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন, টুর্ণামেন্ট সংশ্লিষ্ট সজল দাশ, ডা: এস.কে পাল সুজন, ডা: অপূর্ব ধর, ডা: প্রণব মজুমদার, বিপ্লব দাশগুপ্ত, আসিফ ইকবাল, টুর্ণামেন্টের পক্ষে অমিত দাশ, আলম চৌধুরী, অভিজিৎ দে, আরাফাত, সাগর, লিটন, আবিদ, নিয়াজ আহমেদ।
মত-বিনিময়ে বক্তারা বলেন, খেলাধুলা হচ্ছে শিশু-কিশোরদের মানসিক বিকাশ ও সুন্দর চরিত্র গঠনের অন্যতম মাধ্যম। খেলাধূলা অনৈতিক কাজ ও অসুন্দর থেকে শিশু-কিশোরসহ সকল বয়সের মানুষকে দূরে রাখে। আমাদের বর্তমান সমাজে যেভাবে মাদক ছড়িয়ে পড়েছে তা থেকে মুক্তির অন্যতম পথ হচ্ছে খেলাধূলা। তাই সকলস্তরের মানুষকে ক্রীড়ার মাধ্যমে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। বলতে হবে, ‘মাদক ছেড়ে খেলতে চল, খেলাধূলায় বাড়ে মনোবল।’ বক্তারা আরো বলেন, চট্টগ্রামে খেলাধূলার মাঠ যেন সংকুচিত না হয় সে জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সব সময় নজরে রাখতে হবে। এছাড়াও বর্তমানে নগরীতে যে মাঠগুলো রয়েছে তা যেন রক্ষার যথাযথ উদ্যোগ নেওয়া হয়। খেলাধূলার মাধ্যমে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে একটি উল্লেখযোগ্য পরিচিত নাম। সেই সুনাম ধরে রাখার জন্য সকল ক্রীড়াপ্রেমিদের অবদান রাখতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, কমিটির চেয়ারম্যান আলী আহমেদ শাহীন। লটারীর মাধ্যমে চারটি গ্রুপে ৮টি দল টুর্ণামেন্টে অংশগ্রহণ করবে। বাফুফের নিয়ম অনুযায়ী নক-আউট পদ্ধতিতে এই টুর্ণামেন্টের খেলা পরিচালিত হবে।

শেয়ার করুনঃ

আরো খবর

Leave a Reply