বাংলাদেশ, সোমবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লামা মাসিক আইন শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত

লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি
লামা উপজেলা মাসিক আইন শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৯ নভেম্বর মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে কমিটির সভাপতি নির্বাহী অফিসার নূর এ জান্নাত রুমি এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল।
সভায় বক্তারা সন্ত্রাস-চাঁদাবাজ, পরপর কয়েকটি হাতির মৃত্যু, নারীর বিষপানে আত্মহত্যা, ফিটনেস বিহীন হর্ণ ছাড়া বেপরোয়া গাড়ি চালানোসহ নানা বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সভা সূত্রে প্রকাশ, সম্প্রতি একটি সশস্ত্র অস্ত্রদারী দল উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদা দাবী করছে। সভায় বলা হয়, উপজেলা পরিষদ এলাকায় রাতের বেলায় নেশাখোরদের আনাঘোনায় শংকিত সরকারি কর্মচারীরা।
সভায় পুলিশের বক্তব্যানুযায়ী, অক্টোবর মাসে লামা থানায় খুনের মামলা-১, সড়ক দুর্ঘটনা- ১, অস্ত্র মামলা-১, মাদক মামলা-৪, চুরি মামলা-১ ও অন্যান্য-১টি মামলা হয়েছে। সারা দেশের ত‚লনায় এই উপজেলার আইন শৃঙ্খলা অনেক ভালো বলেও জানান, জনপ্রতিনিধিরা।
লামা বন বিভাগে সদ্য যোগদানকারি বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এসএম কাইসার অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে সবার সাথে পরিচিত হন। এসময় তিনি বন্য হাতি রক্ষায় সকল মহলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে বলেন, হাতির আক্রমণ থেকে রক্ষার কৌশল শিখানোর উদ্যোগ নিয়েছেন বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্ক কর্তৃপক্ষ। তাই কোন হাতির বধ না করে তা রক্ষা করা দায়িত্বশীল নাগরিকের করণীয় হওয়া উচিৎ। পরপর দু’টি হাতির মৃত্যু নিয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, একটি হাতি ইলিক্ট্রিকশটে মৃত্যু হওয়ার বিষয়ে বন বিভাগ নিশ্চিত হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। জীববৈচিত্র রক্ষায় সকল মহলের সহযোগিতা কামণা করেন ডিএফও। প্রসঙ্গক্রমে তিনি জানান, লামা বন বিভাগের মাতামুহুরী রিজার্ভ এলাকায় একটি ইকোপার্ক প্রতিষ্ঠা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বন বিভাগ।
ফিটনেস গাড়ি দিয়ে যান বাহন চলা চলে নিরাপদ সড়ক আইনের বাস্তবায়ন করাসহ, পৌর শহরকে যানঞ্ঝটমুক্ত রাখার জন্য ট্রাপিক ও পুলিশের কর্মকান্ড আরো জোরদার করার আহবান জানানো হয় আইন শৃঙ্খলা সভায়। সম্প্রতি লামা ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের সাপমারা ঝিরি থেকে বহিরাগত একটি চক্র পাথর উত্তোলন ও বিভিন্ন পাহাড়ী ছড়া থেকে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন লামা উপজেলা চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, স্থানীয় উন্নয়ন কাজে ব্যাবহারে স্থানীয়রা এসব করতে পারছেন না; কিন্তু অন্য জেলার লোকে কিভাবে এসব অবৈধ কর্মতৎপরতা চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মহলের কঠোর হস্তক্ষেপ কামণা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল।
সভায় অ্যান্যদের মাঝে বক্তব্য দেন, লামা থানা ওসি তদন্ত আমিনুল হক, গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা, রুপসিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান সাচিংপ্রু মার্মা, ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন মজুমদার, প্রেসক্লাব সভাপতি প্রিয়দর্শী বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক মো.কামরুজ্জামান প্রমূখ।

আরো খবর

Leave a Reply

Close