বাংলাদেশ, শনিবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘দেশ গড়ার জন্য আ.লীগের সঙ্গে ঐক্যের প্রয়োজন’

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার একটি বাংলাদেশ গড়ার জন্য আওয়ামী লীগের সঙ্গে ঐক্যের  প্রয়োজন।
আজ শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন কংগ্রেসে বক্তব্য দেয়ার সময় এসব কথা বলেন।আজ রাশেদ খান মেননের নেতৃত্বাধীন ওয়ার্কার্স পার্টির দশম কংগ্রেস শুরু হয়েছে।

মেনন বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সময়ে যখন দেশে মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতার উত্থান ঘটেছিলো, সেই বিশেষ বাস্তবতায় স্বাধীনতার সপক্ষের শক্তির সঙ্গে পার্টির ঐক্য গড়ে ওঠে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের সঙ্গে ১৪ দল ঐক্যবদ্ধ নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে। সেই বাস্তবতা এখনো শেষ হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার একটি বাংলাদেশ গড়ার জন্য এই ঐক্যের এখনো প্রয়োজন আছে।

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি বলেন, দেশের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। দারিদ্র্য কমেছে, শিক্ষার হার বেড়েছে। দেশ বিদ্যুৎ ও খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। কিন্তু সেই উন্নয়নে দেশের সব মানুষ ভাগীদার হয়নি। কিছু মুষ্টিমেয় মানুষদের হাতে প্রচুর অর্থবিত্ত হয়েছে। তারাই দেশের অর্থ বিদেশে পাচার করছে।

প্রধানমন্ত্রী যে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চালাচ্ছেন, ওয়ার্কার্স পার্টি তাঁর পাশে আছে বলে জানিয়েছেন মেনন। তিনি বলেন, এই উন্নয়ন দেশের অধিকাংশ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় একটি বৈষম্যহীন রাষ্ট্র গঠনে ওয়ার্কার্স পার্টি লড়াই করবে। এই কংগ্রেস থেকে ফিরে গিয়ে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা-কর্মীরা পার্টিকে আরো সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করে তুলবেন, এটাই এই কংগ্রেসের ডাক।

চীন, উত্তর কোরিয়া, ভিয়েতনামসহ ৫৭টি দেশের বামপন্থী ও কমিউনিস্ট পার্টির ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ওয়ার্কার্স পার্টি। আজ থেকে শুরু হওয়া পার্টির দশম কংগ্রেস উপলক্ষে শুভেচ্ছা বাণী পাঠিয়েছে দেশগুলো। কংগ্রেস শেষ হবে আগামী ৫ তারিখে।

এর আগে কংগ্রেস বর্জনের ডাক দেন পার্টির ছয় নেতা। এর মধ্যে দুইজন পলিটব্যুরোর সদস্য। বাকি চারজন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য।

কংগ্রেসের প্রথম অধিবেশনে আরো বক্তব্য দেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা।

আরো খবর

Leave a Reply