বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লামা পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা নাগরকি ভোটার করাসহ নানা অভিযোগ

লামা সংবাদদাতা : ১৫ অক্টোবর
লামা পৌরসভার এক ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও তার ছেলের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা নাগরিকদের ভোটার করাসহ নানা দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় ওসমান গনি নামের একজন দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যানসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ প্রেরণ করেছে।

অভিযোগে প্রকাশ, লামা পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও তার ছেলে ক্ষমতার অপব্যবহার, দূর্নীতি, অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন, বার্মাইয়াদের ভোটার তালিকায় অন্তর্:ভুক্তি, মাদক ব্যাবসা, জায়গা-জমি জবর দখল, অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনসহ স্থানীয়দেরকে হয়রানি করছে। চার জন বিদেশী নাগরিক (রোহিঙ্গা)কে ভোটার তালিকায় অন্তর্:ভুক্ত করিয়েছে ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: হাবিল মিয়া। তিনি লাইসেন্স বিহীন ডিজেল-পেট্টোল, ওষুধ, সার বিক্রি করছে। তিন চার বছরে এই কাউন্সিলর বাড়ি গাড়িসহ প্রচুর সম্পদের মালিক হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে। কাউন্সিল এর ছেলে মঞ্জুর একজন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। সে এলাকায় সন্ত্রাসীদের আশ্রয় ও মদদ দিয়ে গ্রামে ইয়াবা ব্যাবসা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগে উল্লেখ আছে।

অভিযোগে আরো প্রকাশ করা হয়, বিগত কয়েক মাস আগে উক্ত কাউন্সিলর “প্রতিবেশি অভিযোগকারি ওসমান গনির বাড়িতে দু’টি অজ্ঞাত লাশ রয়েছে” মর্মে লামা থানার পুলিশকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে হয়রানি করেছে। সম্প্রতি ওসমান গনির বসতঘরসহ তার পিতা মো: কালু মিয়ার নামীয় আর/২৩৩ নং হোল্ডিং এর দখলীয় এক একর পঁচিশ শতাংশ জমি থেকে মঞ্জুর বাহিনী জবর দখল করছে প্রায় এক একর। এর ফলে মৃত কালু মিয়ার স্ত্রী-সন্তানরা বাস্তহারা হওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে। এসব ব্যাপারে ইতোপূর্বে লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এর কাছে অভিযোগ রয়েছে। ওসমান গনিদের পৈত্রিক সম্পত্তি দখলীয় বিচারাধীন মামলার উক্ত জায়গা জবর দখল করে মিথ্যা অজুহাতে নানা ভাবে হয়রানি করছে কাউন্সিলর আর তার ছেলে মঞ্জুর। প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের জুলুম নির্যাতনের বিরুদ্ধে গ্রামের কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছেনা বলেও অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে।

এ সব অভিযোগ অস্বীকার করেন ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: হাবিল মিয়ার ছেলে মো: মঞ্জুর। তিনি বলেন, ওসমান গনির সাথে তাদের জমির সীমানা বিরোধ রয়েছে। এর জের ধরে সে মিথ্যা অভিযোগ আনায়ন করে ‘আমাদেরকে হয়রানি করছে’। রোহিঙ্গা নাগরিক ভোটার করার সংক্রান্ত বিষয়ে বলেন, এটা মোটেও সত্য নয়, উপরন্ত ২ রোহিঙ্গা নাগরিক সম্পর্কে আমরা প্রশাসনকে অবহিত করেছি।
এসব ব্যাপারে স্থানীয়রা সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আরো খবর

Leave a Reply