বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লামায় দূর্গা পূজার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

মো.কামরুজ্জামান, লামা (বান্দরবান) 
মেঘের তীব্র গর্জনোত্তর প্রবল বৃষ্টি, বিজলী চমকানো আলো আধাঁরী; এমন আবহ’র মধ্যে দিয়ে (৪অক্টোবর) শুক্রবার ষষ্ঠীতে সন্ধ্যায় কল্পারম্ভ, অকাল বোধনের মাধ্যমে লামা কেন্দ্রীয় হরি মন্দিরে পূজার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়। লাল ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন, লামা পৌর মেয়র মো: জহিরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুর-এ জান্নাত রুমি, লামা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আপ্পেলা নাহা রাজু।
উদ্বোধনকালে পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ, পৌর কাউন্সিলরগনসহ গন্যমান্য ব্যাক্তিদ্বয় উপস্থিত ছিলেন। জানা গেছে, ৬ দিন ব্যাপি অন্যান্য ধর্মীয় অনুসঙ্গ সম্পন্ন শেষে; ৯ অক্টোবর বিজয়াদশমীতে দূর্গা বিসর্জন দেয়া হবে।
পূজার সার্বিক ব্যাবস্থাপনা নিয়ে লামা কেন্দ্রীয় দূর্গা পূজা উদযাপন পরিষদের-২০১৯’র সভাপতি বাবুল দাশ অনুভূতি ব্যাক্ত করেন। বাবুল দাশ একজন সহজ সরল মানুষ। উদার মানসিকতা সম্পন্ন এই মানুষটি দলমতের উর্ধ্বে থেকে যে কোন কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন।
পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মাননীয় মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এর অহীংস মনোভাবের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।
পার্বত্য এই জননেতাকে মূল্যায়ন করতে গিয়ে তিনি জানান, অ-সাম্প্রদায়িক চেতণা, ধর্ম-বর্ণ, দলমত নির্বিশেষে সবাইকে আপন করে নেয়ার ঈশ্বর কর্তৃক প্রদত্ত গুণ রয়েছে বীর বাহাদুর মহোদয়ের।
শারদ শুভেচ্ছার এক ব্যানারের প্রসঙ্গ টেনে বাবুল দাশ বলেন, কোন দলীয় অবস্থান থেকে নয়; একজন দানশীল-উদার নেতাকে সব যুগে সব মানুষ হ্নদয়ের মণি কোঠায় স্থান দিয়েছে।বীর বাহাদুর এমপিও একজন দায়িত্বশীল অভিভাবক হিসেবে আমাদের অন্ত:কোণে আছে, থাকবেন।
লামা উপজেলা দূর্গা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি করে যাঁরা তাকে সম্মানীত করেছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।বাবুল দাশ বলেন, লামা উপজেলায় শান্তিপূর্ণভাবে পূজা উৎসব পালিত হওয়ার সু-দীর্ঘ ঐতিহ্য রয়েছে। পূজা উদযাপনে য়াঁরা সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে চলছে, তিনি তাদরে প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে, লামা সনাতনী ধর্মাবলম্বি মানুষ ও পূজা উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে দেশবাসীকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান তিনি।

আরো খবর

Leave a Reply