বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

লামায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

লামা সংবাদদাতা : ৩ অক্টোবর
লামায় স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুকের দাবীতে হত্যা চেষ্টা, মারধর, নির্যাতন ভরণ-পোষণ না দেয়ার অভিযোগ করেছেন এক মার্মা গৃহবধু। লামা পৌর সভার নুনারবিলপাড়া হ্লাচিনু মার্মা ১ সন্তানের জননী তার সেনা সদস্য স্বামীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনেন।
সম্প্রতি এই নারীর অভিযোগে প্রকাশ, বান্দরবান উজানী পাড়ার বাসিন্দা উচ্চাহ্লা মার্মা বাপ্পির সাথে ২০১৫ সালে তার বিয়ে হয়। বর্তমানে তার কোলে সাড়ে তিন বছর বয়সী একজন কন্যা সন্তান রয়েছে। উচ্চাহ্লা মার্মা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিগন্যাল কোরের একজন সৈনিক বলে জানান,তার স্ত্রী হ্লাচিনু মার্মা। তাকে বিয়ে করার আগে উচ্ছাহ্লা মার্মা আরেকটি বিয়ে করেছে; এই তথ্যটি গোপন করে সে হ্লাচিনুকে প্রেমের ফাঁদে আটকে বিয়ে করেন। বিবাহের ৫/৬ মাস তাদের সম্পর্ক ভালোই কেটেছে। একজন সেনা সদস্য হিসেবে হ্লাচিনুর ও তার পরিবার উচ্চাহ্লাকে বিশ্বাস করতেন।
অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে, হ্লাচিনু যখন সন্তান সম্ভাবা ছিলো; উচ্চাহ্লা গর্ভের সন্তান নষ্ট করার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তখন থেকে তার উপর নির্যাতন শুরু করেন উচ্চাহ্লা। সন্তান ভুমিষ্ট হওয়ার পরে বান্দরবান নিয়ে গিয়ে সন্তানসহ হ্লাচিনুকে অনেকবার হত্যার চেষ্টা চালায়। তার স্বামী প্রায়ই নেশা গ্রস্থাবস্থায় শারিরীক নির্যাতন করতেন তাকে। বিগত ২/৩ বছর ধরে হ্লাচিনুর স্বামী উচ্চাহ্লা লামায় এসে তার কাছে পাঁচভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবী করতে থাকে। তার দাবী পুরণ না করায় স্ত্রী সন্তানের ভরন-পোষণ বন্ধ করে দেয় এবং আরেকটি বিয়ে করবে বলে হুমকী দিতে থাকে উচ্চাহ্লা। এরই মধ্যে হ্লাচিনু জানতে পারে তার স্বামী এর আগেও আরেকটি বিয়ে করেছে ও বিভিন্ন মেয়ের সাথে তার পরক্রিয়া সম্পর্ক রয়েছে।
সম্প্রতি তার স্বামীসহ পূর্বের স্ত্রীসহ পরিবারের অন্যরা মোবাইল ফোনে ৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে অতিষ্ট করে তুলেছে হ্লাচিংনুকে। এসব দাবী পুরণ না করলে সে ও তার শিশু সন্তানকে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকী দিচ্ছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ রয়েছে। বর্তমানে হ্লাচিংনু মার্মা এর প্রতিকার চেয়ে চট্টগ্রাম সেনানীবাসস্থ ৩২ এসটি ব্যাটালিয়নের অধিনায়কসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ ও আইনি সহায়তা দাবী করেছে।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণসহ হ্লাচিনুর আত্মীয়-স্বজনরা এর প্রতিকার ও সু-বিচার প্রার্থণা করছে।

আরো খবর

Leave a Reply