বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে মহান নবী দিবসে নগরজুড়ে বিশাল ছেম্আ মিছিল, মোটর শোভাযাত্রা, সমাবেশ ও আলোচনা

মহান আল্লাহ তায়ালা সমগ্র বিশ্বজগতের রহমত হিসেবে হজরত মুহাম্মদ (সা.) কে এ জগতে প্রেরণ করেন। দুনিয়ার বুকে তার আগমন ঘটেছিল ‘সিরাজাম মুনিরা’ তথা আলোকোজ্জ্বল প্রদীপ রূপে।তাই হজরত মোহাম্মদ (সা.) এর ধরায় আবির্ভাবের দিনটি বিশ্ববাসীর জন্য অত্যন্ত পবিত্র, তাৎপর্যপূর্ণ এবং মহিমান্বিত দিন।

বিশ্ব নবী হযরত মোহাম্মদ মোস্তফা (সাঃ) এর ১৪৪৯তম সৌরবার্ষিকী আবির্ভাব দিবস পালনের লক্ষ্যে আজ বৃহস্পতিবার ২৯ আগস্টপ্রতিবারের ন্যায় যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় উদযাপিত হলো ‘মহান নবী দিবস’ বা ‘ইয়্যাউমুন্ নবী’ বা ‘প্রপেট্স ডে’। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে নবী দিবস উদযাপন পরিষদের ব্যবস্থাপনায় সকাল ১০টায় জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ ময়দান থেকে মাইজভান্ডারী ছুফী ভাবধারা অনুযায়ী ছেম্আ মিছিল সহকারে এক বিশাল মোটর শোভাযাত্রা নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে রেলওয়ে অফিসার্স ক্লাবে এসে জমায়েত হয়।

এই মোটর শোভাযাত্রায় নেতৃত্বদান করেন কুমিল্লা রাজাপুর দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন হযরত দলিলুর রহমান রাজাপুরী। র‌্যালিতে আরো উপস্থিত ছিলেন হযরত আল্লামা আকতার কামাল শাহ, হযরত নিজামুদ্দিন ছালেকী রাহে ভান্ডারী, হযরত আবুল কালাম শাহ, মো. আলী আকবর শাহ, হযরত আবুল হাশেম মাইজভান্ডারী, হযরত শফিকুর রহমান আরমান, হযরত আবদুল্লাহ আল রেজা, আল্লামা ফরিদুল আনোয়ার, হাকিম মাওলানা ইকবার ইউসুফ, গোলাম মো. আবেদ, মো. হাসান শিকদার, এপেক্সিয়ান এডভোকেট ফেরদৌস সেলিম, পরে রেলওয়ে অফিসার্স ক্লাবে এক আলোচনা সভা চট্টগ্রাম দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন আল্লামা ছৈয়দ জাফর ছাদেক শাহ (মাজিআ) এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মাইজভান্ডার দরবার শরীফের গাউছিয়া আমিন মঞ্জিলের সাজ্জাদানশীন হযরত সৈয়দ ওসমান কাদের মাইজভান্ডারী, বিশেষ অতিথি ছিলেন নায়েবে সাজ্জাদানশীন সৈয়দ মারুফ বিন কাদের মাইজভান্ডারী।আলোচনায় অংশ নেন, সাংবাদিক রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, লেখক অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, বাংলাপোস্টবিডি.কম ও সাপ্তাহিক পূর্ববাংলার সম্পাদক এম.আলী হোসেন ও মানবকল্যাণ কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইকবাল ইউসুফ প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, অশান্ত বিশ্বে ক্ষমতার দ্ব›দ্ব, সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসন, জাতি গোত্রে হানাহানি সব কিছুর মূলোৎপাটন করে বিশ্ব মানবতাকে শান্তির সুশীতল চায়াতলে আচ্ছাদিত করতে নবী মুহাম্মদ (সঃ) এর আদর্শ অনুসরণের কোন বিকল্প নেই। আল্লাহ তায়ালা যুগে যুগে মানবতার মুক্তির লক্ষ্যে পৃথিবীর বিভিন্ন জনপদে বিভিন্ন গোত্রের নিকট মহানায়কদের পাঠিয়েছেন, যারা অহীর মাধ্যমে মানব জাতির শান্তি নিশ্চিত করতে আমৃত্যু কাজ করেছেন। বিভিন্ন নবী ও রাসুলকে বিভিন্ন গোত্রের জন্য বা নির্দিষ্ট এলাকার জন্য প্রেরণ করলেও আল্লাহ তায়ালা রাসুল (সঃ) কে সমগ্র বিশ্ব মানবতার জন্য প্রেরণ করেছেন।

 

আরো খবর

Leave a Reply