বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে পরিবেশ উন্নয়ন সোসাইটি (বাপউস) আয়োজিত পরিবেশ দিবসের আলোচনা সভা

বিশ্বজুড়ে বায়ু দূষণ নিরব ঘাতক হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে

জীবন ধারণের অপরিহার্য উপাদান বায়ু আর এই বায়ুকে দূষণ করছি আমরা নিজেরাই। যার ফলে প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে। মানুষ লোভ-লালসা চরিতার্থ করার জন্য বিচার বিবেচনাহীনভাবে দূষিত করছে জীবনের অপরিহার্য উপাদান বাতাসকে। সাম্প্রতিককালে বিশ্বের অন্যান্য স্থানের মতো এশিয়াতেও পরিবেশগত ইস্যুগুলির মধ্যে বায়ুদূষণে অধিকতর প্রাধান্য লাভ করেছে। এর মূল কারণ অপরিকল্পিত শিল্পায়ন ও নগরায়ন। বিশ্বে প্রতিবছর ৭০ লাখ মানুষ বায়ু দূষণের শিকার হয়ে মারা যায়। বায়ু দূষণ নীরব ঘাতক হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে বিশ্বজুড়ে। এটা এখন একটা চ্যালেঞ্জ। যা সবাইকে একযোগে মোকাবেলা করতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন, বায়ু দূষণ ঠেকাতে সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যেতে হবে। বায়ু এখন অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর মানে অবস্থান করছে। অথচ পরিবেশ রক্ষায় যে কাজ হচ্ছে সেখানে সমন্বয়হীনতা রয়েছে। প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিবেশবাদীদের সমন্বয় নেই। সমন্বয় নেই সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানের। এই সমন্বয়হীনতার সংস্কৃতির কারণে পরিবেশ সুরক্ষায় গতিশীলতা আসছে না। বায়ু দূষণকে সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সিটি কর্পোরেশন, ওয়াসা, গ্যাস কোম্পানিগুলো, বিদ্যুৎ বিভাগ, বিআরটিএ এবং পুলিশের সমন্বিত উদ্যোগ জরুরি। পরিবেশের উপর নেমে আসা বিপর্যয় নিয়ে আজ বিশ্বের মত বাংলাদেশও উদ্বিগ্ন। কারণ আজ মানুষের জীবন ঝুঁকির মুখে। বায়ুকে নির্মল করে তুলতে হলে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। তেমনি পরিবেশ রক্ষায় যারা নিয়োজিত তাদের দায়িত্ব পালনের কোন বিকল্প নেই। গতকাল ২১ জুন শুক্রবার বিকেল ৪ ঘটিকায় নগরীর বহদ্দারহাটস্থ কাশফুল রেস্টুরেন্ট-এ বাংলাদেশে পরিবেশ উন্নয়ন সোসাইটি (বাপউস) আয়োজিত বিশ্ব পরিবেশ দিবস-২০১৯ উপলক্ষে “বায়ু দূষণ রোধ করি, বাস যোগ্য ভবিষ্যৎ গড়ি” শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা উল্লেখিত বক্তব্য প্রদান করেন। বাংলাদেশে পরিবেশ উন্নয়ন সোসাইটি (বাপউস) এর চেয়ারম্যান এ,কে,এম আবু ইউসুফের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নজরুল গবেষক ও সংগঠক এম.এ সবুর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইতিহাসবিদ সোহেল মুহাম্মদ ফখরুদ-দীন, প্রাবন্ধিক নুর মোহাম্মদ রানা, জাতীয় মানবাধিকার ইউনিটি চট্টগ্রাম মহানগর সাধারণ সম্পাদক স.ম.জিয়াউর রহমান, চট্টবাণী’র সম্পাদক নুরুল কবির, রোটারিয়ান ডাঃ মোঃ মনির আজাদ, প্রধান শিক্ষক বাবু মিন্টু কুমার দাশ, মনসুরুল হাসান জিয়া, জেলা স্কাউটসের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস.এম.শাহনেওয়াজ আলী মির্জা, প্রকৌশলী মোঃ ফেরদৌস ওয়াহিদ, লায়ন এইচ এম ওসমান সরোয়ার, সালাউদ্দিন লিটন। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, মোঃ বেলাল উদ্দিন চৌধুরী, রাশেদ মাহমুদ পিয়াস, সাংবাদিক এসডি জীবন, সাংবাদিক রাজীব চক্রবর্তী, খুটাখালী ব্লাড কল্যাণ সোসাইটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল মুরাদ, ইএফ এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শামীম উল্লাহ আদিল, মোঃ হারুনুর রশিদ খালেদ, মোঃ সাইফুল ইসলাম সায়মন, আমান উল্লাহ চৌধুরী, মোঃ ফোরকান প্রমূখ। সভাশেষে উপস্থিত সকলেই সমবেতভাবে পরিবেশ দূষণরোধে নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হয়ে অন্যকে সচেতন করার উদ্যোগ নেওয়ার প্রত্যয়ে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

আরো খবর

Leave a Reply