বাংলাদেশ, রবিবার, ২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বৃষ্টির পানিতে ভেসে এলো ১০ বস্তা সরকারি ওষুধ

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রশাসনিক ভবনের ক্যান্টিনের পেছনে ড্রেনের পাশে মাটি চাপা দেয়া কমপক্ষে দশ বস্তা সরকারি ওষুধ ও গজ ব্যান্ডেজসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম পড়ে রয়েছে।আজ শনিবার সকালের বৃষ্টিতে মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা ওষুধগুলো বেরিয়ে পড়ে। এরপর দুপুরের পর ঘটনাটি নজরে আসে সর্বসাধারণের।

মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা ওষুধের পরিমাণ কমপক্ষে ১০ বস্তা। ওষুধগুলোর এখনও মেয়াদ রয়েছে বলে জানিয়েছেন সদর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান।তিনি জানান, লুকিয়ে রাখা ওষুধগুলো সরকারি। এসব ওষুধের এখনও মেয়াদ রয়েছে। বস্তাভর্তি ওষুধগুলো ক্যান্টিনের পেছনে ড্রেনের মধ্যে পড়ে রয়েছে। কিছু ওষুধ মাটির নিচে লুকিয়ে রাখা। আমরা কিছু ওষুধ স্যাম্পল হিসেবে নিয়ে এসেছি। বাকি ওষুধগুলো সেখানে পড়ে রয়েছে। ওষুধের সঙ্গে গজ ব্যান্ডেজসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম রয়েছে।
তিনি আরও বলেন, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কেউ কিছু বলতে চায় না। ওষুধগুলো কি কারণে সেখানে পড়ে রয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত বলা সম্ভব নয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিস্তারিত বলতে পারবে।এ বিষয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. শাহজাহান আলী বলেন, ক্যান্টিনের পেছনে সেপটিক ট্যাংকের পাশে বহু টাকা মূল্যের এ ওষুধ মাটি চাপা দেয়া ছিল। বৃষ্টির পানিতে ভিজে তা বেরিয়ে পড়ে। এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের ওষুধ রয়েছে, যার মেয়াদ ২০২২ সাল পর্যন্ত। সঙ্গে গজ ব্যান্ডেজ ও ক্যানোলা রয়েছে। এসব ওষুধ হাসপাতালের স্টোর থেকে খোয়া যায়নি। এমনকি এসব ওষুধ ও চিকিৎসাসামগ্রী তার সময়কালে ক্রয় করা হয়নি।তিনি বলেন, আমার দায়িত্বকালে ওষুধসহ অন্যান্য সরঞ্জাম লুকানোর ঘটনা ঘটেনি। আমার যোগদানের আগে ঘটনাটি ঘটতে পারে।

আরো খবর

Leave a Reply