বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০১৯ ইং, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

গুজরাটে কোচিং সেন্টারে আগুন, ১৮ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ভারতের গুজরাট রাজ্যে ভবনে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় নিহত বেড়ে ১৮ হয়েছে। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। শুক্রবার বিকেলে রাজ্যের সুরাটের তক্ষশীলা নামের ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, নিহতদের অধিকাংশের বয়স ১৪ থেকে ১৭ বছরের মধ্যে। এদের বেশিরভাগ শিক্ষার্থী।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, সুরাটের ওই ভবনে কোচিং সেন্টার রয়েছে। ভবনটির একেবারে উপরের তলায় কোচিং সেন্টার অবস্থিত। এসময় প্রাণ বাঁচাতে ভবনের ছাদ থেকে লাফ দেয় ছাত্ররা। তৃতীয় ও চতুর্থ তলা থেকেও মানুষকে লাফ দিতে দেখা যায়। লাফ দেওয়ার ভিডিও ফুটেজ দেখা গেছে টেলিভিশন চ্যানেলে। এখন পর্যন্ত ১৮ জন শিক্ষার্থী মারা যাওয়ার খবার পাওয়া গেছে।

সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত কীভাবে হয়েছিল সেই বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি।

জিনিউজ বলছে, ভবনটির দ্বিতীয় তলায় আগুনের সূত্রপাত। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে আগুন। আতঙ্কে অনেকে উপর থেকে ঝাঁপ দেয়। আবার অনেকে আগুন ও ধোঁয়া থেকে বাঁচতে জানালা দিয়ে লাফ দেয়।

সুরাটের মেয়র বলেছেন, ভবনের ভেতর থেকে এখন পর্যন্ত আটজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আগুনে ওই ভবনের আশপাশের ভবন থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১৯টি ইউনিট কাজ করছে।

সুরাটের পুলিশ কমিশনার সতীশকুমার মিশ্র জানিয়েছেন, মৃত্যুর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। কারণ সব মিলিয়ে প্রায় ৪০ জন ঝাঁপ দিয়েছেন ওই বহুতলের উপর থেকে।

এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ভারতে নির্বাচিত নতুন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার বিকেলে লোকসভার ক্যাবিনেটের শেষ বৈঠক করেছেন তিনি। তার ফাকেই এই ঘটনা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে টুইট করেন তিনি। মোদি গুজরাট সরকারকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলেছেন।

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি নিহতদের পরিবারকে ৪ লাখ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

আরো খবর

Leave a Reply